Link copied!
Sign in / Sign up
7
Shares

কফি বা চায়ের সাথে মুচমুচে স্ন্যাক্স চাই?

 


ছুটির দিন হোক বা কাজের দিন বিকেলের চায়ের সাথে একটু ভিন্ন ধরণের স্ন্যাক্স সবারই চাই। কিন্তু প্রতিদিন নতুন নতুন স্ন্যাক্স রেসিপি পাওয়াটাও তো কঠিন। তাই আপনার জন্য খুব সহজে ঘরে থাকা উপাদান দিয়ে তৈরি করা যায় এমন কিছু স্ন্যাক্স রেসিপি ।

১. ময়দার পাকোড়া

উপকরণ: ১ কাপ ময়দা, ৩ টেবিল চামচ সুজি, ১/২ কাপ টকদই, ১/২ কাপ পেঁয়াজ কুচি, ২টি কাঁচা লঙ্কা কুচি, ১/৪ কাপ চিনাবাদাম কুচি, ১ চিমটি বেকিং সোডা, নুন স্বাদমত, তেল।

প্রণালী: প্রথমে ময়দা, সুজি, টক দই, কাঁচা লঙ্কা, নুন, বেকিং সোডা, এবং সামান্য জল দিয়ে মিশিয়ে নিন। খুব বেশি পাতলা যেন না হয়ে যায় সেদিকে লক্ষ্য রাখবেন। তাই বেশি জল মিশাবেন না। কিছুটা ঘন হবে মিশ্রণটি। তারপর এতে চিনাবাদাম কুচি, পেঁয়াজ কুচি দিয়ে ভাল করে মিশিয়ে নিন। মিশ্রণটি কিছুটা আঠাল হবে। এরপর একটি প্যানে তেল গরম করতে দিন। তেল গরম হয়ে আসলে ময়দার মিশ্রণটি গোল গোল করে তেলে ছেড়ে দিন। বাদামী রং হতে আসলে ওভেন থেকে নামিয়ে ফেলুন। সস বা চাটনি দিয়ে পরিবেশন করুন মজাদার ময়দার পাকোড়া।

২. শাহি টুকরা রেসিপি

উপকরণ: পাউরুটি ১টা(বাদামি অংশ টা কেটে নিতে হবে।চার কোনা বা তিন কোনা যেমন ইচ্ছা), দুধ- ১লিটার, চিনি- যে যেমন পছন্দ করে, নুন- ১চিমটি, তেল বা ঘি- ভাজার জন্য, এলাচ গুড়া- ৩টা, বাদাম- সাজানোর জন্য

প্রনালি: প্রথমে পাউরুটি এর বাদামি অংশ কেটে ফেলে দিতে হবে।এরপর চার কোনা বা তিন কোনা করে কেটে নিতে হবে। এবার ঘি বা তেল এ বাদামি করে পাউরুটি গুলু ভেজে নিতে হবে।দুধ জাল দিয়ে হাফ লিটার করে নিতে হবে।দুধ ঘন হয়ে গেলে এতে চিনি আর এলাচ গুড়া দিয়ে নেড়ে দিতে হবে। এ সময় এক চিমটি নুন দিন।আমি মিষ্টি জিনিস এ সামান্য নুন দি।না হয় ভাল লাগেনা।এবার পাউরুটি গুলু বাটিতে সাজিয়ে দিন।এতে ঘন দুধ ঢেলে দিন।উওপরে বাদাম ছিটিয়ে দিন। হয়ে গেল পাউরুটির শাহি টুকরা।

৩. বাঁধাকপির রোল

উপকরণ: ৮টি বাঁধাকপি পাতা, ৪টি মাঝারি আলুর সিদ্ধ ও ভর্তা, ১/২ কাপ মটরশুঁটি সিদ্ধ ও ভর্তা, ১ চা চামচ চ্যাট মশলা, ১ কাপ বেসন, ১/২ চা চামচ লাল লঙ্কার গুঁড়ো, ১/২ চা চামচ বেকিং সোডা, নুন স্বাদমত, তেল

প্রণালী: প্রথমে বাঁধাকপি থেকে পাতাগুলো আলাদা করে ফেলুন। পাতাগুলো নুন জলে সিদ্ধ করে নিন। এতে করে পাতাগুলো নরম হবে এবং ভাঁজ করা যাবে। এবার আলু ভর্তা, মটরশুঁটির ভর্তা, নুন, চ্যাট মশলা দিয়ে ভাল করে মিশিয়ে নিন। তারপর সিদ্ধ বাঁধা কপির পাতার ভিতর আলু, মটরশুঁটির মিশ্রণটি দিয়ে দিন। এবার বাঁধাকপির পাতাটিকে রোলের মত করে পেঁচিয়ে নিন। এখন বেসন, নুন, লাল লঙ্কার গুঁড়ো, বেকিং সোডা, এবং জল দিয়ে বাটার তৈরি করে নিন। একটি প্যানে তেল গরম করতে দিন। তেল গরম হয়ে এলে বাঁধাকপির রোলগুলো বেসনে ডুবিয়ে তেলে দিয়ে দিন। বাদামী রং হয়ে এলে নামিয়ে ফেলুন। সস দিয়ে পরিবেশন করুন মজাদার মচমচে বাঁধাকপির রোল।

৪. লেয়ার পেস্ট্রি

উপকরণ: ২ কাপ ময়দা এবং ৪ কাপ আটা, ২ চা চামচ নুন

পুরের জন্য: ৪০০ গ্রাম মাংস, ৪ টেবিল চামচ তেল, ১টি পেঁয়াজ কুচি, ২ চা চামচ লাল লঙ্কা গুঁড়ো, ১ চিমটি গোলমরিচ গুঁড়ো, ১ চা চামচ নুন, ১ টেবিল চামচ টকদই, ১টি ডিম

লেয়ার দেওয়ার জন্য: ১টি ডিম, ২ টেবিল চামচ টকদই, ৪ টেবিল চামচ তেল

প্রণালী: প্রথমে ওভেনে প্যান দিয়ে তেল দিয়ে দিন। এতে পেঁয়াজ কুচি দিয়ে ২-৩ মিনিট নাড়ুন। পেঁয়াজ নরম হয়ে আসলে এতে মাংসের কিমা দিয়ে রান্না করুন। মাংস নরম হয়ে আসলে এতে গোললঙ্কা গুঁড়ো, নুন, শুকনো লঙ্কা গুঁড়ো দিয়ে ঢেকে দিন। তারপর আরেকটি পাত্রে ময়দা, নুন এবং জল দিয়ে ডো তৈরি করুন। পাতলা কাপড় দিয়ে ৩০ মিনিট ঢেকে রাখুন। ৩০ মিনিট পর ডো থেকে ১২ টি লেচী তৈরি করে রাখুন। একটি লেচী দিয়ে পাতলা রুটি তৈরি করে নিন। আরেকটি পাত্রে ডিম, টকদই এবং তেল দিয়ে ভাল করে ফেটুন। মিশ্রণটি পাতলা করার জন্য এতে সামান্য জল মিশিয়ে নিন। এবার বেক করার পাত্রে প্রথমে একটি পাতলা রুটি তার উপর ডিমের সস তার উপর আরেকটি পাতলা রুটি আবার ডিমের সস তার উপর আরেকটি রুটি এবং ডিমের সস তার উপর আরেকটি পাতলা রুটি দিয়ে দিন। তার উপর রান্না করা কিমা ছড়িয়ে দিন। তার উপর পাতলা রুটি, ডিমের সস আরেকটি পাতলা রুটি, মাংস এবং রুটি তার উপর ডিমের সস তার উপর রুটি আবার মাংস এবং রুটি, ডিমের সস দিয়ে কয়েকটি লেয়ার তৈরি করুন। সবশেষে ডিম এবং টকদইয়ের মিশ্রণটি সম্পূর্ণ রুটির মাঝে ভাল করে ছড়িয়ে দিন। এখন ছুরি দিয়ে ছোট ছোট চারকোণা আকৃতিতে কেটে নিন। ২০০ ডিগ্রী সেলসিয়াস অথবা ৪০০ ডিগ্রী ফারেনহাইটে প্রিহিট ওভেনে ৩৫ থেকে ৪০ মিনিট বেক করুন। ব্যস তৈরি হয়ে গেল তুরস্কের জনপ্রিয় লেয়ার পেস্ট্রি।

 

৫. বেকড ফ্রেঞ্চ ফ্রাই

উপকরণ: দুইটি বড় আলু, আড়াই টেবিল চামচ ভেজিটেবল অয়েল, নুন স্বাদমতো, ধনেপাতা কুচি, রসুন, কুচি, পনির কুচি

প্রণালী: প্রথমে আলুগুলোকে ভালো করে ধুয়ে নিন। এরপর ইচ্ছে করলে খোসা ছিলেও নিতে পারেন, রেখেও দিতে পারেন। এরপর এদেরকে ফ্রেঞ্চ ফ্রাইয়ের শেপে কেটে নিন। আলুর টুকরোগুলোকে একটি বড় বোলে জলে ডুবিয়ে রাখুন আধা ঘন্টা। আধা ঘন্টা পরে এগুলোকে বের করে তোয়ালের ওপর রাখুন এবং ওপরে আরেকটি তোয়ালের রেখে চেপে শুকিয়ে নিন। ওভেন ৪২৫ ডিগ্রিতে প্রিহিট করতে দিন। আলুর টুকরোগুলোকে একটা বড় প্লেটে সাজিয়ে মাইক্রোওয়েভ ওভেনে তিন মিনিট গরম করে নিন। একই সময়ে একটা বেকিং ট্রে প্রি হিটেড ওভেনে গরম করে নিন। তিন মিনিট পর আলুর টুকরোগুলোকে বের করে একটা তোয়ালে দিয়ে একটু টস করে নিন যাতে শুকনো থাকে। ওপরে ছড়িয়ে দিন ভেজিটেবল অয়েল। ভালো করে চামচ দিয়ে নেড়ে নিন যাতে সবগুলো টুকরোয় সমানভাবে তেল মেখে যায়। ওভেন থেকে গরম ট্রে টা বের করে এর ওপরে সমান করে বিছিয়ে দিন আলুর টুকরো। ২০-২৫ মিনিটের জন্য ওভেনে বেক হতে দিন এগুলোকে। ওভেনে থাকা অবস্থায় খেয়াল রাখুন। উল্টে দেবার দরকার হতে পারে। ওভেন থেকে বের করে গরম থাকতে থাকতে ওপরে ছড়িয়ে দিন নুন এবং গোললঙ্কা গুঁড়ো। ইচ্ছে হলে দিতে পারেন কিছু রসুন কুচি, ধনেপাতা কুচি এবং পনির। এরপর টস করে নিন। ব্যাস তৈরি হয়ে গেলো দারুণ মুচমুচে, স্বাস্থ্যকর বেকড ফ্রেঞ্চ ফ্রাই।

৬. সাবুদানার খিচুড়ি

উপকরণ: ২ কাপ চিনাবাদাম, ১ কাপ সাবুদানা জলে ভেজানো, ১/২ কাপ চিনাবাদামের গুঁড়ো, নুন, ১.৫ বা ২ চা চামচ চিনি, ২ টেবিল চামচ ঘি, ৫টি কাঁচা লঙ্কা, ২টি মাঝারি আকৃতির আলু সিদ্ধ, ধনেপাতা কুচি

প্রণালী: প্রথমে চিনাবাদামগুলো মাঝারি আঁচে ৪-৫ মিনিট ভেঁজে নিন। তারপর ব্লেন্ডারে গুঁড়ো করে নিন। আরেকটি পাত্রে ভেজানো সাবুদানা, চিনাবাদামের গুঁড়ো, নুন, এবং চিনি একসাথে মিশিয়ে নিন। এবার একটি প্যানে ঘি, কাঁচা লঙ্কা এবং সিদ্ধ আলু দিয়ে কিছুক্ষণ রান্না করুন। এরসাথে সাবুদানা দিয়ে দিন। ঢাকনা দিয়ে অল্প আঁচে রান্না করুন। ব্যস তৈরি হয়ে গেল মজাদার সাবুদানার খিচুড়ি। ধনেপাতা কুচি দিয়ে পরিবেশন করুন ভিন্ন স্বাদের সাবুদানার খিচুড়ি।

৭. ক্রিমি পটেটো

উপকরণ: ৩টা আলু, সেদ্ধ কর ভর্তা করা, আধা কাপ ধনেপাতা কুচি, আধা চা চামচ কাঁচালঙ্কা পেস্ট, এক চা চামচ লেবুর রস, ৩ টেবিল চামচ কর্ন ফ্লাওয়ার, আধা চা চামচ জিরা গুঁড়ো (তাওয়ায় টেলে গুঁড়ো করা), নুন স্বাদমতো, মোজারেলা পনির ৫০ গ্রাম, ময়দা এক কাপ, আধা কাপ ব্রেড ক্রাম্ব, আধা কাপ বাদাম, ডিপ ফ্রাই করার জন্য তেল

প্রণালী: ছোট ছোট স্কয়ার করে কেটে নিন মোজারেলা পনির। একটা বোলে আলু ভর্তাটা নিন। ধনেপাতা, বাদাম, লঙ্কার পেস্ট, জিরা গুঁড়ো, নুন, কর্ন ফ্লাওয়ার দিয়ে ভালো করে মাখিয়ে নিন। মিশ্রণটি আলাদা করে রেখে দিন। এবার তৈরি করতে হবে ব্যাটার। ময়দার সাথে অল্প করে নুন মিশিয়ে নিন। অল্প অল্প করে জল মিশিয়ে ব্যাটার তৈরি করে নিন। খুব বেশি ঘন হবে না আবার পাতলাও হবে না। আলুর মিশ্রণে এবার লেবুর রসটুকু দিয়ে মাখিয়ে নিন। মাঝখানে একটা করে পনিরের টুকরো দিয়ে আলুর বোল তৈরি করে নিন। তেল গরম করে নিন কড়াইতে। প্রথম আলুর বোল ব্যাটারে ডুবিয়ে এরপর গড়িয়ে নিন ব্রেড ক্রাম্বে। এরপর ডিপ ফ্রাই করে নিন সোনালি করে। তৈরি হয়ে গেলো দারুণ ক্রিমি পটেটো। বাইরেটা মুচমুচে হলেও ভেতরটা হবে খুব নরম আর ক্রিমি।

৮. নুডলস স্প্রিং রোল

উপকরণ: ১/৪ কাপ বাঁধাকপি কুচি, ১/২ ক্যাপসিকাম চিকন করে কাটা, ১টি পেঁয়াজ কলি চিকন করে কাটা, ৪-৫টি বরবটি কুচি, ম্যাগি নুডলস এবং এর টেস্ট মেকার, ১ কাপ টমেটো সস, ১ টেবিল চামচ তেল, ১/২ চা চামচ আদা লঙ্কার পেস্ট, ১ চা চামচ চাট মশলা, নুন, টাবাসকো সস, ময়দার পেস্ট।

প্রণালী: প্যানে তেল দিয়ে ক্যাপসিকাম এবং মটরশুঁটি দিয়ে ২ মিনিট ভাজুন। এতে ম্যাগি নুডলস দিয়ে দিন। জল এবং টেস্ট মেকার দিয়ে কিছুক্ষণ রান্না করুন। এবার এতে আদা কাঁচালঙ্কার পেস্ট, চাট মশলা, টমেটো কেচাপ, বাঁধাকপি কুচি এবং পেঁয়াজ কলি কুচি এবং নুন দিয়ে মিশিয়ে নিন। রোল শিট নিয়ে এতে নুডলসের মিশ্রণটি দিয়ে দিন। এবার শিট একপাশ থেকে রোল করে অন্যপাশে নিয়ে আসেন। ময়দা এবং জলর মিশ্রণ দিয়ে রোলের মুখ লাগিয়ে দিন। এবার তেল গরম হয়ে আসলে রোলগুলো দিয়ে দিন। বাদামী রং হয়ে আসলে নামিয়ে ফেলুন। সস দিয়ে পরিবেশন করুন মজাদার নুডলস স্প্রিং রোল।

৯. ফ্রাইড চিকেন

উপকরণ : চিকেন পিস ৪ টা, ডিম ১ টা, গোললঙ্কা গুঁড়ো ১/২ চামচ, ওয়েস্টার সস ১ টেবিল চামচ, সয়া সস ১ চামচ, সরিষা গুঁড়ো / পেস্ট ১ চামচ, ময়দা ১ টেবিল চামচ, টোস্ট বিস্কুট এর গুঁড়ো ১ কাপ, নুন পরিমান মত, তেল ১ কাপ।

প্রনালি : চিকেন পিস গুলো ধুয়ে জল ঝরিয়ে রাখুন। একটা পাত্রে ডিম, সরিষা গুঁড়ো, ওয়েস্টার সস, সয়া সস, গোল লঙ্কাগুঁড়ো, নুন, ময়দা এক সাথে ফেটিয়ে চিকেন ম্যারিনেট করে রাখুন। এখন চিকেন পিস গুলো বিস্কুটের গুঁড়োতে ভাল ভাবে গড়িয়ে ১০ মিনিট ফ্রিজে রাখুন। এতে চিকেনের সাথে ক্রাম্ব লেগে থাকবে। ডুবো তেলে সময় নিয়ে সোনালি করে ভাজুন। সস অথবা রাইস এর সাথে উপভোগ করুন এই খাবারটি।

১০. চিজ ফিঙ্গার

উপকরণ: ৩০০ গ্রাম পনির, ২ টেবিল চাচম লাল লঙ্কার পেস্ট, ২টি রসুন কুচি, নুন, ৩/৪ চা চামচ গোলমরিচর গুঁড়ো, ৪ টেবিল চামচ কর্ণ স্টার্চ, ১ টেবিল চামচ ময়দা, তেল

প্রণালী: প্রথমে একটি পাত্রে লাল লঙ্কার পেস্ট, গোলমরিচর গুঁড়ো, রসুন কুচি, নুন ভাল করে মেশান। যদি মেরিনেইট করার পেস্টটি ঘন হয়ে যায়, তবে সামান্য তেল মিশিয়ে পাতলা করে নিতে পারেন। এবার আরেকটি পাত্রে ময়দা, কর্ন স্টার্চ এবং নুন একসাথে মিশিয়ে নিন। পনিরগুলোকে আঙ্গুলের সাইজে কেটে নিন। পনিরের টুকরোগুলো মশলার মাঝে জড়িয়ে তারপর ময়দার মিশ্রণে মেশান। ওভেনে তেল গরম হয়ে আসলে পনিরের টুকরোগুলো ডুবো তেলে দিয়ে দিন। মাঝারি আঁচে বাদামী রং না হওয়া পর্যন্ত ভাজুন। এরপর নামিয়ে ফেলুন। টমেটো সস দিয়ে পরিবেশন করুন মজাদার চিজ ফিঙ্গার।

১১. ভেজিটেবল মোমো

উপকরণ: ২ কাপ ময়দা, ১ চা চামচ তেল, ঈষদুষ্ণ জল

সবজি পুরের জন্য: ১ কাপ বাঁধাকপি কুচি, পৌনে এক কাপ গাজর কুচি, ১টি মাঝারি পিঁয়াজ কুচি, ১/২টি কাঁচালঙ্কা কুচি, ২ কোয়া রসুন কুচি, আধা ইঞ্চি আদা কুচি, ১ চা চামচ সয়া সস, সিকি চা চামচ গোললঙ্কা গুঁড়ো, সিকি চা চামচ চিনি, নুন স্বাদমতো।

প্রণালী: মোমোর ডো-এর তৈরির জন্য ময়দা, তেল এবংনুন একটি পাত্রে নিন। একটু একটু করে উষ্ণ জল দিয়ে মাখিয়ে ডো-এর তৈরি করে নিন। নরম ডো-এর তৈরি হলে একটি ভেজা কাপড় দিয়ে ঢেকে রাখুন। সবজির পুর তৈরির জন্য একটি বড় প্যানে তেল গরম করে নিন। এতে রসুন দিয়ে একটু সাঁতলে নিন। এতে কাঁচালঙ্কা এবং আদা দিয়ে নেড়ে নিন। এরপর পিঁয়াজ দিয়ে ৩ মিনিট ভেজে নিন যাতে পিঁয়াজ স্বচ্ছ হয়ে ওঠে। এতে গাজর দিয়ে মাঝারি আঁচে রান্না হতে দিন ৩-৪ মিনিট। এরপর বাঁধাকপি দিয়ে রান্না করুন কমপক্ষে ৮-১০ মিনিট। এরপর এতে সয়া সস, গোললঙ্কা গুঁড়ো এবং চিনি দিয়ে ভালো করে মিশিয়ে নিন। আঁচ বন্ধ করে দিন। ঘরের তাপমাত্রায় নিয়ে আসুন। মোমো তৈরি করার ঠিক আগে নুন মেশাবেন। মোমোর ডো আবারো ২-৩ মিনিট মাখিয়ে নিন। এরপর ছোট ছোট বল তৈরি করে রুটি গড়ে নিন। ছোট এই রুটির ভেতরে এক টেবিল চামচ সবজি দিয়ে এক পাশ থেকে মুড়তে শুরু করুন। স্টিমারে ৩/৪ ইঞ্চি জল ফুটিয়ে নিন। জল ফুটে এলে এতে মোমো দিয়ে ১০ মিনিট ভাপিয়ে নিন। চাটনি দিয়ে পরিবেশন করুন মজাদার মোমো। স্টিমার না থাকলে প্রেশার কুকারের ওপরের ওয়েইট সরিয়ে নিয়ে ব্যবহার করতে পারেন। স্টিমারে বাধাকপির পাতা বিছিয়ে মোমো ভাপিয়ে নিতে পারেন, এতে স্টিমারের সাথে আটকে যাবে না মোমো।

১২. ডিম-আলুর চপ

উপকরণ: ৩টি বড় আলু সেদ্ধ করে চটকে নেওয়া, ৩ টেবিল চামচ তেল, ১টি পিঁয়াজ মিহি কুচি, ২ টেবিল চামচ রসুন বাটা, নুন স্বাদমত, ভাজা মশলা (১ টেবিল চামচ জিরা এবং ১টি শুকনো লঙ্কা গুঁড়ো করা), ৬টি সেদ্ধ ডিম, ১ টি কাঁচা ডিম, ব্রেড ক্রাম্ব প্রয়োজনমত, ডিপ ফ্রাই করার জন্য তেল।

প্রণালী: একটি প্যানে অল্প তেল গরম করতে দিন। গরম তেলে পিঁয়াজ দিয়ে দিন। হালকা বাদামি হয়ে এলে অল্প করে নুন দিন। এরপর রসুন বাটা দিয়ে নেড়েচেড়ে নিন যাতে কাঁচা গন্ধটা চলে যায়। এবার চটকে নেওয়া আলু দিয়ে দিন এতে। ভালো করে মেশান, দরকার হলে নুন দিন। এতে ১ টেবিল চামচ ভাজা মশলা দিয়ে মিশিয়ে নিন। আলুর সাথে মশলা মিশে শুকিয়ে এলে আঁচ বন্ধ করে দিন। ঠাণ্ডা হতে দিন। সেদ্ধ ডিমগুলোকে ইচ্ছে করলে অর্ধেক করে কেটে নিতে পারেন অথবা আস্তও রাখতে পারেন। ডিমটাকে আলুর মিশ্রণ দিয়ে ঢেকে নিন। ডিম্বাকার আকৃতিতে গড়ে নিন। ২-৩ টেবিল চামচ জল দিয়ে কাঁচা ডিমটাকে মিহি করে ফেটিয়ে নিন। একটি প্লেটে ছড়িয়ে নিন ব্রেড ক্রাম্ব। আলু দিয়ে ঢাকা ডিমগুলোকে প্রথমে ফেটানো ডিমে এরপর ব্রেড ক্রাম্বে গড়িয়ে নিন। ডিপ ফ্রাই করার জন্য তেল গরম করে নিন। মাঝারি আঁচে ভেজে নিন ডিমের চপগুলোকে। পেপার টাওয়েলে রেখে তেল ঝরিয়ে নিন। গরম গরম পরিবেশন করুন সস বা সালাদের সাথে।

Click here for the best in baby advice
What do you think?
0%
Wow!
0%
Like
0%
Not bad
0%
What?
scroll up icon