Link copied!
Sign in / Sign up
3
Shares

স্তন্যপান করানোর সময় আপনার এই অভ্যেসগুলি যে শিশুর পক্ষে ক্ষতিকারক হতে পারে তা কি আপনি জানতেন?


বাচ্চাদের স্তনপান করানো নিজে থেকেই একটা চ্যালেঞ্জ এবং আপনি যদি নতুন মা হন, তাহলে আপনি নিশ্চয়ই জানবেন আমরা কিসের ব্যাপারে কথা বলছি। আপনার জন্য পড়ে থাকে কেবল কালশিটে, কর্কশ এবং এমনকি বেদনাদায়ক স্তনবৃন্ত কিন্তু তবুও তা আপনাকে আপনার সন্তানকে স্তনপান করানো থেকে আটকাতে পারে না। কেন? কারণ এটা আপনার সন্তানের পুষ্টির এক এবং একমাত্র উৎস। তাহলে, আপনি কি চাইবেন না তার সঙ্গে জড়িত সমস্ত কিছু যাতে নির্ভুল হোক? এখানে তুলে ধরছি কয়েকটি স্তনদানের অভ্যাস যা হয়তো আপনি আপনার অঞ্জানে করছেন কিন্তু সেগুলোর আপনার শিশুর ওপরে কিছু বাস্তব প্রভাব রয়েছে।


১. একটি নির্দিষ্ট সূচীতে সীমাবদ্ধ থাকা

আপনি কোনো কর্মরতা মা-ই হোন বা কোনো ব্যস্ত মানুষ-ই হোন, স্তনপান করানোর একটা নির্দিষ্ট সূচীতে সীমাবদ্ধ থাকাটা আপনার সবথেকে বাস্তবসম্মত ও সুবিধাজনক লাগলেও আপনার শিশু কিন্তু তাতে সহমত নাও হতে পারে। মনে রাখবেন আপনার সন্তান আপনার মতোই একজন মানুষ এবং সে প্রতিদিন একই সময়ে ক্ষুধার্ত হয় না। সুতরাং, আপনি যখন একটি সূচীতে আটকে থাকেন, আপনি হয় আপনার শিশুকে ক্ষুধার্ত রাখেন বা তাকে জোরপূর্বক খাওয়ান যখন সে আদৌ ক্ষুধার্ত নয়, যে দুটির কোনোটাই কাম্য নয়।

২. দৃষ্টি সংযোগহীনতার অভাব

কেবলমাত্র স্তনপান করানো ছাড়াও স্তনদান প্রক্রিয়াটির সাথে আপনার ও আপনার সন্তানের মধ্যে বন্ধনের ব্যাপারটিও জড়িয়ে আছে। এই যোগাযোগটি আপনার শিশুর মানসিক গঠনের জন্য প্রয়োজনীয়। সুতরাং স্তনপান করানোর সময় আপনি যখন নিজেকে আপনার মুঠোফোনে ব্যস্ত রাখছেন, আপনি আপনার মূল্যবান সন্তান-মায়ের মধ্যেকার মূহূর্তগুলো হারাচ্ছেন। পরেরবার যখন আপনি স্তনপান করাবেন, আপনার স্মার্টফোনটিকে ছাড়ুন এবং আপনার সন্তানের বড় বড় চোখগুলোর দিকে তাকান যেগুলো শুধু আপনাকেই ভালোবাসে।


৩. ঘড়ির দিকে নজর রাখা

আপনি কি জানেন স্তনদানের শুরুতে উৎপন্ন দুগ্ধ শেষের দিকে উৎপন্ন দুগ্ধের থেকে আলাদা হয়? এবং আপনার শিশুর পুষ্টির ক্ষেত্রে এই ফোরমিল্ক ও হাইন্ডমিল্ক উভয়েই প্রয়োজন। সুতরাং, এর অর্থ হলো কখনোই উচিত নয় একটি নির্দিষ্ট সময় ধরে স্তনপান করানো, পুরো প্রক্রিয়াটি ততক্ষণ স্থায়ী হওয়া উচিত যতক্ষণ না আপনার স্তন খালি হচ্ছে বা আপনার শিশুর ছোট্ট পেটটি ভর্তি হচ্ছে।

৪. আনপ্রেস্ক্রাইবড্ ওষুধ সেবন

আপনার স্তনদানের সময় আপনি কি খাচ্ছেন তার ওপর নজর রাখা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কিছু ওষুধের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া থাকে যা আপনার মাতৃদুগ্ধের গঠন, স্বাদ এবং গন্ধের তারতম্য ঘটাতে পারে। তাই, কোনো ওষুধ (আয়ুর্বেদিক, হোমিওপ্যাথিক বা অ্যালোপ্যাথিক) গ্রহনের আগে, সবসময় আপনার চিকিৎসকের পরামর্শ নিন এবং উল্লেখ করুন যে আপনি একজন স্তনদাত্রী।

Click here for the best in baby advice
What do you think?
0%
Wow!
0%
Like
0%
Not bad
0%
What?
scroll up icon