Link copied!
Sign in / Sign up
11
Shares

সন্তানের জন্মের পর পেটের চর্বি ঝরানোর জন্য ৫টি নিরাপদ এবং মজার পদ্ধতি


আপনি আপনার ইপ্সিত কাজ করেছেন, ৯ মাস সময় ধরে সন্তানের প্রতি আপনার দায়িত্ব পালন করে চলেছেন, এবং আপনি শীঘ্র আবার নিজের শারীরিক গঠন ফিরে পেতে চান, কিন্তু কাজটি খুব সহজ কী? শিশুর পরিচর্যা একটা সম্পূর্ণ নতুন অভিজ্ঞতা যা আপনার প্রচুর সময় এবং শক্তি দাবী করে। শরীর চর্চা করা বেশ কষ্ট সাধ্য এবং নতুন মায়ের দায়িত্বে স্বচ্ছন্দ হওয়ার পর এই কাজটা ততটা সহজ মনে হবে না যেমনটা দেখা যায় খ্যাতনাম্নী মায়েদের ক্ষেত্রে, যাদের ব্যক্তিগত সহায়কেরা এবং প্রশিক্ষকেরা তাদের জন্য ব্যপারটা সহজ করে তোলেন।

গর্ভধারণের ফলে পেট নীচের দিকে ঝুলে যায় বা বেবী পাউচ তৈরি হয় যেটি নিশ্চিতভাবে আপনার শারীরিক গঠন পরিবর্তনের সব থেকে বড় বাধা। খুব ধীরে ধীরে শুরু করা জরুরী, যেহেতু আপনার শরীর গর্ভধারণের ফলে প্রচুর চাপ বহন করেছে। প্রথমে একটি সহজ ব্যায়ামের অধ্যায় দিয়ে শুরু করার কথা ভাবুন; এর মধ্যে মজা খুঁজে নিন, আপনার আগের কৃশাঙ্গী চেহারা যা সরু জিন্সের সঙ্গে মানানসই ছিল সেই গঠন ফিরে পাওয়া নিশ্চিতভাবে সম্ভব।

এখানে এরকম ৫টি ব্যায়ামের কথা বলা হল যেগুলি মজার এবং আকর্ষক।

১। নৃত্য বা জুম্বা

পেটের চর্বি ঝরানোর জন্য জুম্বা খুব ফলদায়ক একটি ব্যায়াম, যেহেতু এই ব্যায়াম আপনার শরীরের মূল অংশকে শক্তি যোগায় এবং সটান করে তোলে যা প্রধানত পেশী নির্মিত এবং আপনার গর্ভকালীন অবস্থায় যার ওপর অনেক চাপ পরেছিল।

জুম্বা আজকাল খুব বিখ্যাত তার লাতিন-মারিম্বার মত ছন্দের জন্য যা নাচের পক্ষে খুব স্ফূর্তিদায়ক। নতুন মায়েদের জন্য জুম্বা একটি উচ্চ মাত্রার শক্তিদায়ক নাইট ক্লাব নৃত্যসূচী এবং শিশু পরিচর্যার প্রাত্যাহিক চাপ থেকে কিছুটা মুক্তির জানালা।

 

২। পীলেট্‌স

যে কোন ঘরানার ব্যায়াম শুরু করার আগে, এবং যদি আপনার সীজারিয়ান-সেকশান হয়ে থাকে তবে, আপনার ডাক্তারের সঙ্গে প্রাত্যাহিক যোগাযোগ রাখুন; ফিটনেসের অবস্থায় ফিরে যাওয়ার জন্য ৬ সপ্তাহ অপেক্ষা করা উচিত। ওজন কমানোর জন্য পীলেট্‌স একটি সার্বিক প্রক্রিয়া। পীলেট্‌স-এর ব্যায়ামসূচী ৬টি মূল বিষয়ের উপর দাঁড়িয়ে আছে - মনঃসংযোগ, সংযম, কেন্দ্রীকরণ, প্রবাহ, শ্বাস-প্রশ্বাস এবং স্বচ্ছতা। পীলেটস-এর মূল ভাবনার উৎস পেশীর নিয়ন্ত্রণ এবং এইভাবে আপনাকে শারীরিক নিয়ন্ত্রণে সহায়তা করা। পাওয়ার হাউস প্লাঙ্কস, প্লাইস, নী ড্যান্সিং অনুশীলন, সি কার্লস, ইত্যাদি হল মজার মাধ্যমে আপনার পীলেট্‌স শুরু করার পরিকল্পনার অন্তর্গত।

 

৩। স্ট্রোলার ওয়ার্ক আউটস এবং ওয়াকিং

এটি ওজন কমানোর জন্য সম্ভবতঃ সহজতম, সবচেয়ে স্বাস্থ্যকর এবং সবচেয়ে নিরাপদ উপায়। আপনি বাচ্চাকে স্ট্রোলারে নিয়ে সন্ধ্যাবেলায় হাঁটতে বেরোতে পারেন এবং এই পদ্ধতিতে কিছু ক্যালোরি দহন করতে পারেন। এই ব্যায়াম থেকে কোন স্পট রিডাক্সন প্রভাব দেখা যায় না কিন্তু এটি স্বাস্থ্যকর এবং খুব নিয়মিত হারে ওজন কমানোর পক্ষে আদর্শ।

 

৪। পাওয়ার যোগা

শ্বাস-প্রশ্বাসের ব্যায়াম এবং তার সাথে কিছু প্রসারন ব্যায়াম বা স্ট্রেচিং ওজন কমানোর জন্য একটি ধীরস্থির প্রক্রিয়া। আসন শেখার চেষ্টা করুন এবং আপনার কোমরের অংশে মন দিন। অভ্যাস করার জন্য পাওয়ার যোগা খূব ভাল কারণ এটি আপনার প্রয়োজন অনুসারে আপনার অভিজ্ঞতা তৈরি করে। পাওয়ার যোগাতে শিক্ষকদের অনেক বেশী নমনীয়তা থাকে তাদের পছন্দ অনুসারে আসন মুদ্রা সাজানোর। পাওয়ার যোগা আপনাকে শক্তিশালী হতে সাহায্য করবে এবং আপনাকে আগের মত স্বচ্ছন্দ শারীরিক দক্ষতার অবস্থায় নিয়ে যাবে।

 

৫। হুলা হুপস

হুলা হুপিং প্রতি ঘন্টায় প্রায় ৬০০ ক্যালরি দহন করতে পারে এবং আপনার কোমরে কৃশতা আনতে সাহায্য করে। কিন্তু আপনি এই অনুশীলনের সময় বাড়িয়ে এক ঘন্টাতে নিয়ে যাবেন না, কারণ এই ব্যায়াম খুবই শারীরিক পরিশ্রমসাধ্য। আপনার ১৫ মিনিটের সীমার মধ্যেই অভ্যাস বজায় রাখুন এবং তার সঙ্গে কিছু লিফ্‌ট কারডিও অভ্যাস করুন। যখন আপনি শুরু করবেন, ভারী হুলা হুপ দিয়ে শুরু করুন যেহেতু হালকা হুলা হুপ থেকে এটা ঘোরানো সহজ। কিছু মজার গান চালান, হুলা হুপে চেপে বসুন এবং আবার শৈশবে ফিরে যান।

৭ টি কারণ যার জন্যে আপনি পেটের মেধ কমাতে পারছেন না
ওজন কমাতে গেলে কি করা উচিত এবং উচিত নয়
ওজন কমানোর জন্য আপনার রান্নাঘরে থাকা আবশ্যক ৫টি জিনিষ
সন্তান হবার পর ওজন হ্রাস সম্পর্কে আপনার সবকিছু জানা প্রয়োজন
৯ টি প্রাথমিক এবং সহজ ব্যায়াম প্রসবোত্তর কালীন আপনার ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখার জন্য
Click here for the best in baby advice
What do you think?
0%
Wow!
0%
Like
0%
Not bad
0%
What?
scroll up icon