Link copied!
Sign in / Sign up
1
Shares

সন্তান কি খুব মিথ্যে কথা বলছে

আপনার জন্য আপনার সন্তান মিথ্যে কথা বলছে, জানেন কি? জানি অবাক হচ্ছেন। বিশেষ করে যারা সন্তানের বাবা-মা তারা বেশি অবাক হচ্ছেন। ভাবছেন কেনো আপনি সন্তানকে মিথ্যে বলা শেখাবেন। আপনি তো সব সময় তাকে সত্যের পথে থাকার শিক্ষা দান করছেন। পড়ে অবাক হলেও এটাই সত্যি যে,আপনার সন্তান আপনার জন্যই মিথ্যে বলে।

আপনার সন্তান জন্মের পর থেকে আপনার ছায়ায় আপনার আদর্শে বড় হয়। আপনি তাকে যা শিক্ষা দান করবেন সে সেটাই শিখবে। কিন্তু শিক্ষা দানের জন্য তার মনে ভয় নয় সাহস জোগান। অনেক বাবা-মা আছে তারা সন্তানের দুষ্টুমি বন্ধ করতে তাকে বিভিন্ন রকম ভয় দেখায়।যেমন, তুমি যদি খেলনা ভাঙ্গ তবে তোমাকে ভিষণ মারবো। স্কুলে গিয়ে কোন দুষ্টুমি করবে না, করলে কিন্তু স্কুল যাওয়া বন্ধ করে দেবো। তুমি যদি টিফিন না খেয়ে ঘুরিয়ে নিয়ে আসো তবে তোমার খাওয়া বন্ধ।

আপনারা মনে করেন যদি এভাবে শাসন করা হয় তবে আপনার সন্তান ভয়ে আর এই কাজগুলো করবে না। আমি বলব,আপনার ধারণা সম্পূর্ণ ভুল। এতে হিতে বিপরীত হবে। বাচ্চা স্কুলে গিয়ে টিফিনটা হয়তো খাবে না। ফেলে দিয়ে ফাঁকা টিফিন বক্স এনে আপনাকে বলবে দেখো মা আমি সব খেয়েছি। আসলে কি সে সব খাচ্ছে? না। বরং খাবার নষ্ট করার সাথে সাথে সে বাড়িতে ফিরে আপনাকে মিথ্যে বলছে। কারণ তার মনে ভয় আছে খাবার খায়নি শুনলে মা মারবে বা দুপুরে খেতে দেবে না। হয়তো বিকেলে মাঠে খেলতে যেতে দিবেন না।

 

হয়তো আপনার সন্তান স্কুলে দুষ্টুমি করছে কিন্তু আপনাকে মিথ্যে বলছে। স্যার খাতার পিছনে নোটিশ লিখে দেওয়ার পরেও বলবে,না আমি কিছু করিনি। আসলে কি তাই? আপনার সন্তান কিন্তু অপরাধ করছে এবং আপনার ভয়ে সেটা আড়াল করতে মিথ্যে বলে। কারণ তার মনে প্রচন্ড ভয় কাজ করছে। সে বুঝতে পারছে আপনি সত্যিটা জানলে তাকে খুব মারবেন বা সত্যি সত্যি স্কুলে যাওয়া বন্ধ করে দেবেন। এভাবে যদি আপনার ভয়ে সে নিয়মিত মিথ্য বলে তবে এই মিথ্যা একদিন আপনার সন্তানকে পৌঁছে দেবে অপরাধের চরম শেখরে।

 

সন্তানকে নিজের বাধ্য করার জন্য আরো অনেক উপায় আছে। আপনি তাকে একই কথা অন্য রকম করে বলুন। তাকে বলুন,সোনা খেলনা ভাঙ্গবে না। খেলনা ভাঙ্গলে তুমি কি নিয়ে খেলবে। এগুলো খেলা শেষে যত্ন করে তুলে রাখবে। বাচ্চার ব্যাগে টিফিন বক্স দেওয়ার সময় তাকে বলুন, সবটুকু খাবার শেষ করবে। না খেলে শরীর খারাপ হবে। তুমি যদি আজ সব টুকু খাবার শেষ করতে পারো তবে বিকেলে একটু বেশি সময় খেলতে দেবো। স্কুলে দুষ্টুমি করবে না। সবাই খারাপ বলবে। কোন সমস্যা হলে এসে আমাকে বলবে আমি স্যারদের সাথে কথা বলবো।

তাহলে কি আপনার সন্তান একই রকম অপরাধ করবে? আমি বলব, না। আপনার এই কথাগুলো কিন্তু আপনার সন্তানের মনে ভয় না বরং সাহস আর উৎসাহ জাগাবে। তাদের সাথে বন্ধুর মতো আচরণ করুন যাতে তারা আপনাকে ভয় না পায়। তারা আপনাকে নিজেদের সব সমস্যার কথা বলতে পারে। উচ্চ স্বরে না নম্র ভাবে কথা বলুন বাচ্চার সাথে।

Click here for the best in baby advice
What do you think?
0%
Wow!
0%
Like
0%
Not bad
0%
What?
scroll up icon