Link copied!
Sign in / Sign up
0
Shares

সম্পর্কে পরকীয়া আসতে দেবেন না, জেনে নিন মুক্তির উপায়


বিশ্বাস, আত্মনিবেদন, প্রেম এই তিনের উপরই দাঁড়িয়ে আছে বিবাহিত সম্পর্কের রসায়ন। কিন্তু বিশেষ কিছু পরিস্থিতিই কি মানুষকে বাধ্য করে বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কে জড়িয়ে পড়তে? নিজের জীবনে ডেকে আনে ভয়ঙ্কর বিপর্যয় – যা আবেগ ও শরীর দু’দিক থেকেই সবকিছুতে ইতি টেনে দিতে পারে? এধরনের সম্পর্ক প্রকাশ্যে এলেই ঘনিয়ে ওঠে বিপদ। সাংঘাতিক প্রতিঘাত বয়ে বেড়াতে হতে পারে বাকি জীবন। কখনও কখনও ভেঙে যাওয়া বিশ্বাসকে কোনওভাবেই জোড়া লাগানো যায় না। আমরা এখানে এমন কিছু বিষয় কথা বলব, যা বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক থেকে দূরে থাকতে সাহায্য করবে।


কেন হয় এমন ?

যেসব মানুষের জীবনে বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক ঘটে, দেখা গেছে তাঁদের বিবাহিত জীবনে আবেগ ও শরীরী ঘনিষ্ঠতার অভাব ছিল। খুঁজে দেখুন, কেন আপনি অসহায় বোধ করছেন। স্বামী/স্ত্রীর সঙ্গে কথা বলে দেখুন সমস্যাটা কোথায়। মনে রাখতে হবে বিশ্বাস, কঠিন শ্রম, সহনশীল মানসিকতা, কমিটমেন্টই আসল। এর মধ্যেই লুকিয়ে আছে বিবাহিত জীবনের সাফল্যের চাবিকাঠি।


বিশ্বাসহীনতা থেকে মুক্তির উপায়

ইদানিং দেখা যাচ্ছে, কাজের জায়গাতেই অনেকের সঙ্গে অনেকের সম্পর্ক গড়ে উঠছে। পরিবারহীন অফিস টুরে গিয়ে সহকর্মীর সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়ে যাওয়ার উদাহরণ প্রচুর। সেখানে কাজের ফাঁকে অবসর মেলে। সেটাই ঘনিষ্ঠতার সুযোগ করে দেয়। এসব ক্ষেত্রে নিজের বিবাহিত স্টেটাসের কথাটা মনে রাখা উচিত। মনে রাখা উচিত, কারও প্রতি আপনার দায়বদ্ধতা আছে। নিজের সীমা সম্বন্ধে সতর্ক থাকুন। সহকর্মীর সঙ্গে পেশাগত সম্পর্কটাই বজায় রাখুন।

এখন সোশাল নেটওয়ার্কিংয়ের যুগ। টেকনলজির দৌলতে সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ার ব্যাপারটা অনেক বেশি সহজ হয়ে গেছে। সব কিছু হাতের মুঠোয়। যে কোনও মানুষকে ইমপ্রেস করতে পারলে সহজেই তাঁকে ছোঁয়া যায়। অনলাইন সাইটে চলে অবিরত কথা বলা। বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক শুরু হওয়ার ক্ষেত্রে এটাও একটা অধ্যায়। সেখানে কিছু হলে, স্বামী বা স্ত্রীর থেকে সম্পর্ক গোপন করাটাই হবে বিরাট বড় ভুল। মনে রাখবেন, অনলাইনে কোনও কিছু ট্র্যাক করা সবচেয়ে সহজ। তাই পনেরো, ষোলো বছরের কিশোর কিশোরীদের মতো ভুল করা আপনাকে একেবারেই মানাবে না।

সমাধানের রাস্তা

এমন কোনও সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ার আগে নিজে কী চাইছেন, জীবনসঙ্গীর সঙ্গে আলোচনা করে নিন। নিজেদের মধ্যে শান্তভাবে আলোচনা করুন। সমাধান পেলেও পেতে পারেন। বিয়েটা অন্তত ভেঙে যাওয়া থেকে রক্ষা পেতে পারে। মনে রাখুন সম্পর্ক ভেঙে ফেলা খুব সহজ। কিন্তু সেটাকে আজীবন জোড়া লাগিয়ে রাখা খুব কঠিন।

বিবাহিত জীবনে প্রেম ভালোবাসার তল্লাশি না চালিয়ে, একটু কষ্ট করে দেখুন না। জীবনসঙ্গীর কাছেই হয়তো পেয়ে যাবেন অমূল্য ভালোবাসার পরশপাথর। হয়তো মিলবে রোমাঞ্চের নতুন ঠিকানাও।

Click here for the best in baby advice
What do you think?
0%
Wow!
0%
Like
0%
Not bad
0%
What?
scroll up icon