Link copied!
Sign in / Sign up
0
Shares

শিশুর শরীরের ভিটামিনের ঘাটতি মেটাতে শুধুমাত্র শাকসবজি


শীত জানান দিতে শুরু করলেই টপাটপ ভিটামিন সি ট্যাবলেট খেয়ে নেওয়া। শিশুর জন্য মাল্টিভিটামিন ট্যাবলেট দেখে ভাবছেন, দারুণ কাজ দিচ্ছে। শরীর দুর্বল? কাজে এনার্জি নেই? বা বড় কোনও অসুখ থেকে সবে সেরে উঠেছেন? আপনার সন্তান খুব রোগা হয়ে যাচ্ছে? ডাক্তারের কাছে গেলেই খসখস করে লিখে দেন একটি মাল্টিভিটামিন। উপকার পাচ্ছেন কি? মোটেই না। শরীরে কোনও কাজেই লাগে না মাল্টিভিটামিন ট্যাবলেট। একমাত্র ভিটামিনের ঘাটতি মেটাতে পারে শাকসবজি, এবং ফলমূলই।

হার্ট অ্যাটাক হয়েছে, ৫০ বছরের বেশি বয়সি এমন ২০০০ রোগীকে ৩ বছর ধরে অন্যান্য ওষুধের পাশাপাশি মাল্টিভিটামিন খাওয়ানো হয়। তারপর পরীক্ষায় দেখা যায়, হৃদরোগ প্রতিরোধে মাল্টিভিটামিনের কোনও ভূমিকাই নেই। ৬৫ বছর বা তার চেয়ে বেশি বয়সি প্রায় ৬০০০ পুরুষকে ১২ বছর ধরে বাড়তি ভিটামিন ট্যাবলেট খেতে দেওয়া হয়। তারপর তাঁদের মস্তিষ্কের কার্যক্ষমতা পরীক্ষা করা হয়। ভিটামিন ওষুধ খেয়েও মস্তিষ্কের কার্যক্ষমতার কোনও উল্লেখযোগ্য পার্থক্য ধরা পড়েনি।

কয়েক দশক ধরে ঠান্ডা লাগার ধাত রয়েছে এমন প্রায় ১০ হাজার মানুষের ওপর পরীক্ষা চালানো হয়। তাতে দেখা যায়, ভিটামিন সি ট্যাবলেট ঠান্ডা প্রতিহত করতে পারেনি। এমনকী ঠান্ডা লাগার সময়কালকেও কমিয়ে দিতে পারেনি।

মাল্টিভিটামিন ট্যাবলেটে ২ ডজন উপাদান থাকতে পারে। কিন্তু টাটকা শাকসবজি আর ফলে রয়েছে আরও শতাধিক উপকারি যৌগ। অতএব, একখানা মাল্টিভিটামিন ট্যাবলেট খেলে বহু উপকারি যৌগ থেকে বঞ্চিত হবে শরীর। শুধু তাই নয়, মাত্রাতিরিক্ত ভিটামিন এ শরীরে গেলে চুল রুক্ষ, ত্বক খসখসে ও লিভার বড় হয়ে যেতে পারে।

মাল্টিভিটামিন ট্যাবলেট বা ক্যাপসুলের পিছনে অযথা পয়সা খরচ করার কোনও প্রয়োজনই নেই। পাকা ফল ও শাকসবজি যথেষ্ট পরিমাণে খেলে ভিটামিন এ-র ঘাটতি পূরণ হয়। পাতাওয়ালা সবজি, বিভিন্ন ধরনের বাদাম এবং ভোজ্য তেলে রয়েছে প্রচুর ভিটামিন ই। বিভিন্ন প্রকারের লেবুতে রয়েছে যথেষ্ট ভিটামিন সি। সলমন, টুনার মতো সামুদ্রিক মাছে রয়েছে প্রচুর ভিটামিন ডি। তাই মাল্টিভিটামিন নয়, প্রচুর শাকসবজি, ফলই যথেষ্ট। শরীরে ভিটামিনের অভাবই হবে না।

Click here for the best in baby advice
What do you think?
0%
Wow!
0%
Like
0%
Not bad
0%
What?
scroll up icon