Link copied!
Sign in / Sign up
12
Shares

সবজি দিয়ে বিভিন্ন ধরণের ভেজ রেসিপি বানাতে চান?

 


আপনার বাড়ির ফ্রীজে বিভিন্ন ধরনের সবজি হয়তো এই সময়ে জমছে। ভাবছেন কি ভাবে এক সাথে সব সবজি কাজ লাগানো যায়। তাই বলে কি সবজি সবসময় একইভাবে রান্না করে খেতে ভালো লাগে? তাই আপনাদের জন্য এমন কিছু বিভিন্ন ধরণের ভেজ রেসিপি।

১. ক্রিস্পি ভেজিটেবল নাগেটস

উপকরণ: মাঝারী সাইজের গাজর- ২ থেকে ৩টি, আলু- ২ টি, বাঁধাকপি- ১টির অর্ধেক, ব্রকলি ছোট ছোট টুকরো- ১কাপ, অলিভ অয়েল- ১ টেবিল চামচ, গোলমরিচ গুঁড়ো- ১ চা চামচ, নুন (স্বাদমত)

ভাজার জন্য যা লাগবে: ব্রেড ক্রাম্বস- ২কাপ, ডিম- ৩টি, সয়াবিন তেল পরিমাণ মত।

প্রণালী: সবগুলো সবজি আলাদা আলাদা করে আধা সেদ্ধ করে নিন। প্রত্যেকটি আলাদাভাবে সেদ্ধ করতে হবে কারণ একেকটি সবজি সেদ্ধ হতে একেকরকম সময় লাগে। এবার সবগুলো সবজি গ্রেটারে গ্রেট করে নিন। তাতে অলিভ অয়েল যোগ করুন। ফুড প্রসেসর থাকলে আরো ভালো হয়। দেখুন একটি কালারফুল মিক্সচার তৈরি হয়েছে। নাগেটস মিক্সচার তৈরি হলে সাথে সাথেই নাগেটস তৈরি করতে যাবেন না। এত ভেঙে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে। একটি বেকিং ট্রে নিয়ে তাতে নাগেটসের মিক্সচারটি একটু মোটা করে সমান ভাবে বসিয়ে একটি লেয়ার তৈরি করুন। এবার ১৫ থেকে ২০ মিনিট ফ্রিজে রেখে ঠান্ডা করে নিন। এতে মিক্সচারটি একটু শক্ত হবে ও ভেঙে যাবে না। এবার গোল কাটার বা বাটি ব্যবহার করে ট্রে থেকে ভেজিটেবলের মিক্সচারটি গোল গোল করে কেটে নিন। নাগেটস কাটা হয়ে গেলে একটি একটি নিয়ে ডিমে ডিপ করে ব্রেড ক্রাম্বস লাগিয়ে নিন। সবগুলোতে ব্রেড ক্রাম্বস লাগানোর পর কিছুক্ষণ ফ্রিজে রেখে দিতে পারেন। যখন খাবেন তখন নামিয়ে ডুবো তেলে ভেজে নিবেন আর তৈরি হয়ে যাবে ক্রিস্পি ভেজিটেবল নাগেটস।আপনারা নিজেদের পছন্দ মতো সবজিও ব্যবহার করতে পারেন। আর শুধু সবজি খেতে যারা কম পছন্দ করেন তারা এর সাথে চিকেন মিশিয়ে নিতে পারেন। বাইরের নাগেটস আর কিনবেন কেন যদি ঘরেই তৈরি করা যায় এমন মজাদার ও পুষ্টিকর নাগেটস।

২. পাউরুটির পাকোড়া

উপকরণ: পাউরুটি (৪/৬ পিছ ), ১ কাপ ধনিয়া পাতা, ২/৩ টি কাঁচা লঙ্কা, ১ কোয়া রসুন ( বড় রসুন ), লেবুর রস এক টেবিল চামচ, বিট নুন স্বাদ মতো, সেদ্ধ করা বড় আলু ২ টি, ২ টি বড় পেঁয়াজ, নুন স্বাদ মতো, সামান্য জিরা গুঁড়ো, গরম মশলা গুঁড়ো পরিমান মতো, চাট মশলা, বেসন ১ কাপ, আস্ত জিরা হাফ চা চামচ, লাল লঙ্কা গুঁড়ো হাফ চা চামচ, সামান্য হলুদ গুঁড়ো,গোলমরিচ গুঁড়ো হাফ চা চামচ, আদা-রসুন বাটা এক চা চামচ।

প্রণালী: প্রথমে একটি ব্লেন্ডারে ধনিয়া পাতা, কাঁচা লঙ্কা, রসুন, লেবুর রস, বিট নুন ও সামান্য জল দিয়ে গ্রিন সস বানিয়ে নিন। পরিমাণে বেশি বানিয়ে রাখতে পারেন এই সস, পাকোড়ার সাথে পরে খেতে পারবেন। এরপর সেদ্ধ করে রাখা আলু ভর্তা বানিয়ে নিন। বেরেস্তা করে রাখা পেঁয়াজ , একটি কাঁচা লঙ্কা, চাট মশলা( স্বাদ মতো), গরম মশলা গুঁড়ো, সামান্য জিরা গুঁড়ো একসাথে মাখিয়ে নিন এবং এরপর ভর্তা করে রাখা আলুর সাথে সব মিশিয়ে নিন। এখন বেসনের সাথে লাল লঙ্কার গুঁড়ো , হলুদের গুঁড়ো , গোলমরিচের গুঁড়ো , স্বাদ মতো সাদা নুন, আস্ত জিরা, আদা-রসুন বাটা এবং এক টেবিল চামচ জল দিয়ে বেসনের পেস্ট বানিয়ে নিন। এরপর পাউরুটি কোনাকুনিভাবে কেটে নিন , এবার এতে গ্রীন সস জ্যাম যেভাবে লাগায় সেভাবে লাগিয়ে নিন। যারা ঝাল কম খান , তারা গ্রিন সস কম ব্যবহার করতে পারেন। এখন আগে তৈরি করে রাখা আলুর পুর গ্রিন সসের উপর লাগিয়ে নিন। এখন আলুর পুরের উপর আরেক পিছ পাউরুটি দিন। অনেকটা স্যান্ডউইচ এর মতো করে পুর দিতে হবে। পুর দেয়া পাউরুটি বেসনের পেস্টে ভালো করে মাখিয়ে নিন। এখন গরম তেলে ভেজে নিন, পাউরুটি গুলো হালকা বাদামি রঙের হলে চুলা থেকে নামিয়ে নিন পাউরুটি। হয়ে গেল আপনার মুচমুচে পাউরুটির পাকোড়া। এখন গরম গরম পাকোড়া পরিবেশন করুন আগেই তৈরি করে রাখা গ্রিন সসের সাথে অথবা আপনার পছন্দের কোন চাটনির সাথে।

৩. মিন্ট পাকোড়া

উপকরণ: পুদিনা পাতা- ২ কাপ, চালের গুঁড়ো ১ কাপ, বেসন- ২ কাপ, পেঁয়াজ- ২ টি, নুন- স্বাদ অনুযায়ী, কাঁচালঙ্কা- ৩ টি, আদা- ২ টেবিল চামচ, জিরা- ২ টেবিল চামচ, লঙ্কার গুঁড়ো- ১ টেবিল চামচ, তেল- প্রয়োজন মতো।

প্রণালী: প্রথমেই পুদিনা পাতা জল দিয়ে ভালো করে ধুয়ে নিন। এরপর পেঁয়াজ এবং লঙ্কা কেটে নিন ঠিক করে। একটি পাত্রে পুদিনা পাতা, চালের গুঁড়ো, বেসন, পেঁয়াজ কুঁচি, কাঁচালঙ্কা কুঁচি, আদা, জিরা, লঙ্কার গুঁড়ো এবং পরিমান মতো জল দিয়ে ভালো করে মিশিয়ে নিন। একটি সসপ্যানে তেল গরম করে নিন। তেল গরম হয়ে তাতে পাকোড়া ভেজে নিন। ব্যস, তৈরি হয়ে গেলো গরম গরম মিন্ট পাকোড়া। পুদিনা পাতা সাস্থ্যের জন্য খুবই উপকারী। এমনকি ত্বকের জন্যও। সুতরাং মজাদার এবং স্বাস্থ্যসম্মত এই পাকোড়া আজই বানিয়ে পরিবেশন করুন সকাল কিংবা বিকেলের নাশতায়।

৪. বেকড ক্যারট চিপস

উপকরণ: ১/২ কেজি গাজর, ১ টেবিল চামচ দারুচিনি গুঁড়ো, ১ টেবিল চামচ নুন, ১/৪ কাপ অলিভ অয়েল, ১ টেবিল চামচ জিরার গুঁড়ো।

প্রণালী: প্রথমেই বড় বড় গাজরগুলো বেছে নিতে চেষ্টা করুন। যাতে করে চিপস এর সাইজ সুন্দর হয়। গাজর ভালো করে ধুয়ে নিন এবং চিপস এর আকৃতি(গোল বা লম্বা) করে স্লাইস করে নিন। স্লাইসগুলো দারুচিনি গুঁড়ো, নুন, অলিভ অয়েল, জিরার গুঁড়ো দিয়ে ভালো করে মাখিয়ে নিন। একটি বেকশিট নিয়ে তাতে এক লেয়ার করে গাজরের স্লাইসগুলো রাখুন। মচমচে হওয়া পর্যন্ত বেক করুন।

৫. ফুলকপির গুগলি

উপকরণ: ফুলকপি- ৫ কাপ, ডিম- ২ টা, পেঁয়াজ- ৩ টি, ময়দা- ১/২ কাপ, বেকিং পাউডার- ১/২ কাপ, নুন- স্বাদ অনুযায়ী, গোলমরিচের গুঁড়ো- স্বাদ অনুযায়ী, তেল- ভাজার জন্য পরিমাণ মতো।

প্রণালী: প্রথমেই ফুলকপি কুঁচিকুঁচি করে কেটে নিন। একটি বল অথবা বড় পাত্রে ফুলকপির সাথে তেল ছাড়া বাকি সবগুলো উপকরণ দিয়ে দিন। এবং ভালো করে মেখে নিন। যেন ঠিক করে মিশে সবগুলো উপকরণ একসাথে। যদি বেশি নরম হয়ে যায় তবে অল্প পরিমানে ময়দা মাখিয়ে নিতে পারেন। এবার একটি সসপ্যানে পরিমাণ মতো তেল গরম করে নিন। তেল গরম হয়ে গেলে গুগলি গুলো ভেজে নিন। ব্যাস তৈরি হয়ে গেল অনেক কম সময়েই ফুলকপির গুগলি। এবার আপনার পছন্দ মতো সস দিয়ে খেতে পারেন গরম গরম সুস্বাদু গুগলি। আপনি এই খাবারটি চাইলে সকাল এবং বিকেলের নাস্তায় সহজেই ঘরে বানিয়ে খেতে পারেন। এমনকি যারা ডায়েট করেন তারা চাইলে দুপুরেও খেতে পারেন।

৬. মিক্সড ভেজিটেবল কাটলেট

উপকরণ: মিক্সড ভেজিটেবল কুঁচি ১ কাপ (আপনার পছন্দ মতো যেকোন ভেজিটেবল নিতে পারেন), আলু- ২ টা, ধনেপাতা কুঁচি ১/৪ কাপ, কাঁচালঙ্কা কুঁচি ২ টি, গরম মসলা ১ টেবিল চামচ, লেবুর রস ১ টেবিল চামচ, লঙ্কার গুঁড়ো ১/৪ চা চামচ, নুন স্বাদ অনুযায়ী, ডিম ১ টা, গোলমরিচের গুঁড়ো এক চিমটি, ময়দা- ২ টেবিল চামচ, তেল- ভাজার জন্যে।

প্রণালী: প্রথমেই আলু সিদ্ধ করে নিন। আলুর খোসা ছাড়িয়ে নিন এবং আলু ভালো করে মেখে নিন। গরম জলে ভেজিটেবল গুলো ১ মিনিটের মতো সিদ্ধ করে ভালো করে জল ঝরিয়ে নিন। আলুর সাথে নুন ও লঙ্কার গুঁড়ো সহ সবগুলো উপকরণ মিশিয়ে নিন। এখান থেকে ৭-৮ টি ভেজিটেবল কাটলেট বানানো যাবে। আর একটি ছোট পাত্রে ডিমের সাথে নুন, লঙ্কার গুঁড়ো, ময়দা এবং অল্প জল দিয়ে ডিপ বানিয়ে নিন। কাটলেটের দুই পাশে ভাল করে ডিপ লাগিয়ে নিন। এরপর ব্রেড ক্রাম্বস লাগিয়ে নিন। একটি সসপ্যানে তেল গরম করিয়ে নিন। এবং তাতে কাটলেট গুলো ভেজে নিন। যতক্ষণ ব্রাউন কালার না হয় ততক্ষণ ভাজুন। ব্যস তৈরি হয়ে গেল ভেজিটেবল কাটলেট। এবার গরম গরম পরিবেশন করুন। চাইলে টমেটো সস দিয়ে খেতে পারেন। এতে স্বাদ আরও বেড়ে যাবে খাবারের। দেখলেন তো অল্প সময়ের মধ্যেই আপনি চাইলেই কত মজার একটি খাবার বানাতে পারেন! সুতরাং আজই সকাল অথবা বিকেলের নাস্তায় বানিয়ে নিতে পারেন এই ভেজিটেবল কাটলেট। একবার খাবেন তো বারবার বানাবেন।

৭. ক্রিস্পি জুকিনি ফ্রাই

উপকরণ: জুকিনি পাতলা স্লাইস ৭-৮ টুকরা, ময়দা পরিমাণ মতো (ব্যাটার খুব পাতলা হয়ে গেলে একটু বেশি করে নিন), ১ টা ডিম, নুন স্বাদ অনুযায়ী, গোলমরিচ গুঁড়ো সামান্য, জল পরিমাণ মতো, কর্ণফ্লেক্স গুঁড়ো ১ কাপ।

প্রণালী: একটি পাত্রে ময়দা, ডিম নুন, গোলমরিচ গুঁড়ো এবং জল দিয়ে মাখিয়ে ব্যাটার তৈরি করে রাখুন। এবার পাতলা করে জুকিনি কেটে নিন। বেগুনি তৈরির জন্য যেভাবে আমরা কেটে থাকি ঠিক সেভাবেই কাটবেন। একটি পাত্রে কর্ণফ্লেক্স হালকা গুঁড়ো করে নিন। মিহি গুঁড়ো করবেন না। ব্যাটার মিশ্রণে ডুবিয়ে কর্ণফ্লেক্স গুঁড়োতে ডাস্ট করে নিন। ডুব তেলে লাল করে ভেজে নিন। যেকোন সস এর সাথে গরম গরম পরিবেশন করুন মুচমুচে মজাদার ক্রিস্পি জুকিনি ফ্রাই।

৮. ভেজিটেবল ব্রেড চপ

উপকরণ: পাউরুটি ৮ পিস, বেকিং পাউডার ১ চা চামচ, বেসন ৩ টেবল চামচ , গাজর কুঁচি, বাধা কপি কুঁচি, মটরশুটি সিদ্ধ আলু ছোট টুকরা পরিমাণ মতো , ধনিয়া পাতা কুঁচি এক মুঠো পরিমাণ , আদা মিহি কুঁচি ১ চা চামচ, পেয়াজ মিহি কুঁচি ১ চা চামচ, কাঁচালঙ্কা কুঁচি ১ চা চামচ, গোলমরিচ গুঁড়ো ১/২ চা চামচ , গরম মশলা গুঁড়ো ১ চা চামচ, নুন স্বাদ মতো

প্রণালী: প্রথমে পাউরুটির পিস-গুলোকে জলে ভিজিয়ে নরম করে জল নিঙরে নরম করে নিন। একদম ভর্তার মতো করে নিতে হবে। এবার এর সাথে সব সবজি কুঁচি, আলু টুকরা, পেঁয়াজ,আদা, কাঁচালঙ্কা আর ধনিয়া পাতা কুঁচি, বেকিং পাউডার, গরম মশলা গুঁড়ো, গোলমরিচ গুঁড়ো আর নুন দিয়ে মাখিয়ে নিন। এবার এই মিশ্রণটা প্যান এ তেল দিয়ে মিডিয়াম আঁচে লাল করে ভেজে নিন।

৯. চিজি পট্যাটো ললিপপ উইথ মেয়োনিজ ডিপ

উপকরণ: ৩টা বড় সেদ্ধ আলু, ২টা পেঁয়াজ কুঁচিকুঁচি করে কাটা, ৩টা কাঁচালঙ্কা, আধ চা চামচ আদা-রসুন বাটা, ৫০ গ্রাম চীজ / পনির, ২ চা চামচ গুঁড়ো দুধ, সামান্য ধনিয়াপাতা কুঁচি, আধ চা চামচ সাদা গোলমরিচের গুঁড়ো, ব্রেডক্রাম্ব / টোস্ট বিস্কিটের গুঁড়ো, সামান্য নুন, একটা ডিম, ভাজার জন্য তেল, ২ টেবিল চামচ মেয়োনিজ

প্রণালী: ৩টা বড় আলু সেদ্ধ করে ভালোভাবে হাত দিয়ে বা চামচের সাহায্যে ম্যাশ করে নিন। এবার এতে পেঁয়াজ কুঁচি, লঙ্কা কুঁচি, আদা-রসুন বাটা, চীজ / পনির, সাদা গোলমরিচের গুঁড়ো, নুন, গুঁড়ো দুধ, ধনিয়াপাতা কুঁচি দিয়ে খুব ভালোভাবে মিক্স করে নিন। হাত দিয়ে ছোট ছোট বলের আকারে গড়ে নিন। এবার প্রথমে একবার ফেটানো ডিমে, একবার ব্রেডক্রাম্বে, আরেকবার ফেটানো ডিমে, তারপর আবার ব্রেডক্রাম্বে গড়িয়ে ডুবো তেলে সোনালি করে ভেজে ফেলুন। এবার একটা করে টুথপিক বা কাঠিতে বলগুলো গেঁথে গেঁথে পরিবেশন করুন দারুণ মজাদার চিজী পট্যাটো ললিপপ। বাচ্চারা তো এমনি এমনিই খেয়ে ফেলে, কিন্তু বড়দের জন্য সাথে একটা হোমমেইড মজার সস ও রাখতে পারেন কিন্তু। ২ টেবিল চামচ মেয়োনিজ, সামান্য ধনিয়াপাতা আর ২টা কাঁচালঙ্কা ব্লেন্ডারে মিক্স করে নিন। তৈরি হয়ে যাবে স্পাইসি মেয়োনিজ ডিপ।

১০. বাঁধাকপির পাকোড়া

উপকরণ: নর নাগেটস মিক্স ৮ গ্রাম, বাঁধাকপি ১০০ গ্রাম, জল ২৪০ মিলি, ময়দা ৬০ গ্রাম, তেল ৫০০ মিলি

প্রণালী: প্রথমে বাঁধাকপি ধুয়ে পরিষ্কার করে কুঁচি কুঁচি করে কেটে নিন। একটি পাত্রে বাঁধাকপি নিয়ে তাতে নর নাগেটস মিক্স (৮ গ্রাম) ঢেলে ভালো করে মাখিয়ে নিন। এরপর সস প্যানে ৫০০ মিলি তেল ঢেলে গরম করুন। মেরিনেড করা বাঁধাকপি গরম তেলে ছেড়ে দিন। সোনালি রংয়ের হয়ে গেলে নামিয়ে গরম গরম পরিবেশন করুন ক্যাবেজ পাকোড়া ফ্রাই।

Click here for the best in baby advice
What do you think?
0%
Wow!
0%
Like
0%
Not bad
0%
What?
scroll up icon