Link copied!
Sign in / Sign up
2
Shares

শিশুদের কৃমির সমস্যা


শিশুদের কৃমি খুব প্রচলিত একটি সমস্যা। সারা পৃথিবীতেই শিশুদের বিভিন্ন ধরনের কৃমির প্রাদুর্ভাব লক্ষ করা যায়। অধিকাংশ শিশু-কিশোর ও প্রাপ্তবয়স্কদের মধ্যে কৃমির প্রাদুর্ভাব লক্ষ করা যায়। কৃমির ডিম কোনোভাবে পেটে ঢুকলে তা থেকে পেটের মধ্যে কৃমি সৃষ্টি হয়।

এসকারির লুমব্রিকয়েডসের প্রাদুর্ভাব আমাদের দেশে বেশি। একটি সমীক্ষায় গ্রামাঞ্চল ও শহরের শিশুদের মধ্যে যথাক্রমে ৯২ ভাগ ও ২৮ ভাগ ক্ষেত্রে এই কৃমি দেখা গেছে। পেটে কৃমি থাকলে যে সমস্যা তৈরী হয় তা হলো

রোগীর পেটব্যথা হয়

ক্ষুধামান্দ্য দেখা দেয়

পেট ফাঁপা থাকে

শরীর অজীর্ণ হয়

বমি হতে পারে

কৃমি ক্ষুদ্রান্ত্রকে বন্ধ করে দিয়ে প্রচণ্ড পেটব্যথার সৃষ্টি করতে পারে

অন্ত্রনালিকে ছিদ্র করে দিতে পারে

কৃমি পিত্তনালিতে ঢুকে পিত্তনালির পথ বন্ধ করে দিয়ে জন্ডিসের সৃষ্টি করার মতো মারাত্মক অবস্থার সৃষ্টি করতে পারে।

চিকিৎসা

কৃমির চিকিৎসা দেওয়ার আগে কৃমি হয়েছে কি না, সেই বিষয়ে নিশ্চিত হতে হবে। এ জন্য পায়খানা পরীক্ষা করার দরকার রয়েছে। পায়খানা বা স্টুলের রুটিন পরীক্ষায় এটি ধরা পড়ে। এবং যেকোনো কৃমির ক্ষেত্রে ওষুধ সাধারণভাবে ব্যবহৃত হয়ে থাকে। এ ছাড়া কৃমির জন্য একটি ওষুধ এলবেনডাজল। বাজারে এটি আলবেনসহ অনেক নামে পাওয়া যায়। বয়স্ক ও শিশু উভয়ের বেলায় দুটি আলবেন রাতে শোয়ার সময় খাইয়ে দেওয়া যেতে পারে। দুই বছরের কম বয়সী শিশুদের বেলায় ২০০ মিলিগ্রামের একটি আলবেন ট্যাবলেট খাওয়ালেই চলবে। তবে যেকোনো ওষুধ সেবনের আগে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে নিন।

Click here for the best in baby advice
What do you think?
0%
Wow!
0%
Like
0%
Not bad
0%
What?
scroll up icon