Link copied!
Sign in / Sign up
2
Shares

শীতকালে কাশি হলে যা যা এড়িয়ে চলবেন


ঋতু পরিবর্তনের সময় কাশির সমস্যায় ভোগেন অনেকেই। কখনও শুকনো খুসখুসে কাশি। কখনও হয়তো ঠান্ডা লেগে একেবারে কফ-কাশি। কাশির জন্য অনেকসময়ই আমাদের ভীষণ বিড়ম্বনাময় পরিস্থিতির মধ্যে পড়তে হয়। তবে কয়েকটা জিনিস মেনে চললে, কাশির প্রকোপ একটু কমে। যেমন, কাশি হলে বেশ কিছু খাবার আমাদের এড়িয়ে চলা উচিত।

ঋতু পরিবর্তনের সময় কাশির সমস্যায় ভোগেন অনেকেই। কখনও শুকনো খুসখুসে কাশি। কখনও হয়তো ঠান্ডা লেগে একেবারে কফ-কাশি। কাশির জন্য অনেকসময়ই আমাদের ভীষণ বিড়ম্বনাময় পরিস্থিতির মধ্যে পড়তে হয়। তবে কয়েকটা জিনিস মেনে চললে, কাশির প্রকোপ একটু কমে। যেমন, কাশি হলে বেশ কিছু খাবার আমাদের এড়িয়ে চলা উচিত।

১. ক্যাফিনযুক্ত পানীয়

কাশি হলে চা, কফি যাতে ক্যাফিন থাকে তা এড়িয়ে চলা উচিত। কারণ এতে গলা আরও শুকিয়ে যায়।

২. ভাজা খাবার

ভাজা খাবারে থাকে তেল। তেলে কফ বাড়ে। তাই কফ-কাশি হলে ভাজা খাবার একদম খাবেন না। কড়া করে ভাজা খাবার অনেকসময় অ্যালার্জেন হিসেবে কাজ করে। যার ফলে গলায় খুসখুস বাড়ে।

৩. প্রসেসড ফুড

প্রসেসড ফুড দেহের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমিয়ে দেয়। তাই কফ-কাশির মধ্যে প্রসেসড ফুড খেলে সংক্রমণের সম্ভাবনা বেড়ে যায়। এমনকী এই সময় পাঁউরুটি, চিপস বা প্যাকেটজাত স্ন্যাকসও খাওয়া উচিত নয়।

৪. অ্যালকোহল

অ্যালকোহল শরীরকে ডিহাইড্রেট করে। শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমায়। ফলে আরও ঠান্ডা লেগে যাওয়ার সম্ভাবনা বাড়ে।

৫. ঠান্ডা খাবার

আইসক্রিম, কোল্ড ড্রিংকস কাশির মধ্যে একদমই খাওয়া উচিত নয়। কারণ কফ-কাশির মধ্যে ঠান্ডা খেলে সংক্রমণ আরও বেড়ে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

Click here for the best in baby advice
What do you think?
0%
Wow!
0%
Like
0%
Not bad
0%
What?
scroll up icon