Link copied!
Sign in / Sign up
1
Shares

প্রেমে কমিটমেন্ট না থাকা বা কথা না দেওয়ার পেছনে কি কি কারণ থাকে?


বহুদিন ধরে মেলামেশা অথচ কমিটমেন্ট বা প্রোপোজ করার কথা উঠলেই প্রসঙ্গ এড়িয়ে যান। এমনটা তো অনেকের ক্ষেত্রেই হয়। কিন্তু কেন?

কমিটমেন্টফোবিক বলে একটা শব্দ আছে। বাংলায় ভেঙে বললে যার মানে দাঁড়ায় যিনি সহজে সম্পর্কের ক্ষেত্রে কথা দিতে চান না। ছেলেদের ক্ষেত্রে এই সংখ্যাটা একটু বেশির দিকে। তা বলে মেয়েরাও যে এমনটা করেন না তা নয়। কিন্তু ঠিক কী কী কারণে বহুদিন একসঙ্গে থেকেও চূড়ান্ত কথা বলতে চান না অনেকে?

পরিস্থিতি বিশেষে কারণটা আলাদা আলাদা হলেও সাধারণত এই ৭টি কারণে এমনটা ঘটে:

১) অবিশ্বাস

অনেক সময়ে অনেকে প্রেমের সম্পর্কে থেকেও পার্টনারকে পুরোপুরি বিশ্বাস করে উঠতে পারেন না। অতীতের কোনও অপ্রিয় ঘটনা এর কারণ হতে পারে। আগের কোনও সম্পর্কে কেউ ঠকিয়ে থাকলে সেই ভয়ে পরের সম্পর্কগুলির ক্ষেত্রে পার্টনারকে কিছুতেই বিশ্বাস করে ওঠার সাহস পান না।

২) অপরিণতমনস্কতা

সম্পর্ক কী, তাকে কীভাবে বজায় রাখতে হয়, সম্পর্কের দায়িত্বজ্ঞান কাকে বলে, ইত্যাদি বিষয়ে কিছু না ভেবেই শুধুমাত্র শারীরিক আকর্ষণেই যাঁরা সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন তাঁরা কখনোই চূড়ান্ত কথা দিতে চান না। কারণ তাঁরা সম্পর্কের মূল্যই বোঝেন না।

৩) একাধিক সম্পর্ক

একটি সম্পর্কে থেকেও আরও বহু নারী-পুরুষের সঙ্গে মেলামেশা করেন যাঁরা, তাঁরা কখনোই কোথাও থিতু হতে চান না। তাঁরা মুহূর্তে বাঁচেন। কোথাও কথা দিয়ে ফেললে এঁদের দমবন্ধ লাগে। সবাই যে খুব খারাপ মানুষ হন তা নয়, কিন্তু নিজেকে কোথাও বেঁধে ফেলতে এঁদের আপত্তি।

৪) পারিবারিক অশান্তি

এই কারণটি ছেলেদের ক্ষেত্রে বেশি প্রযোজ্য কারণ কথা দেওয়া মানে বিয়ে করে নতুন সদস্যকে পরিবারে আনা। কিন্তু কারও পরিবারে টাকা-পয়সা বা সম্পত্তি নিয়ে ঝামেলা থাকলে বা সদস্যদের মধ্যে ছোট ছোট কারণে অশান্তির আবহ থাকলে তিনি প্রেমে চূড়ান্ত কথা দিতে দ্বিধা বোধ করেন।

৫) আত্মকেন্দ্রিকতা

কেউ কেউ প্রেম করেন শুধুমাত্র নিজের মনোরঞ্জনের জন্য। তাঁরা ব্যক্তিগত সুখ ছাড়া আর কিছুই বোঝেন না। এই সব মানুষ কখনোই অন্য মানুষটির কদর করেন না। সম্পর্ক মানে তাঁদের কাছে নিছর ‘টাইম পাস’ ছাড়া আর কিছু নয়।

৬) কেরিয়ার

ভারতীয় সমাজে আগে শুধু ছেলেদের মধ্যেই এই বিষয়টি ছিল কিন্তু এখন মেয়েরাও তরুণ বয়সে কেরিয়ারকেই প্রাধান্য দেন। যতদিন না কাজের জায়গায় পায়ের তলার মাটিটা শক্ত হচ্ছে, ততদিন বিয়ে-সংসার এমনকী সিরিয়াস প্রেম নিয়েও আপত্তি থাকে অনেকের।

৭) অপ্রেম

যদি দীর্ঘদিন ধরে একসঙ্গে থেকে, অবাধ মেলামেশা করেও যদি কেউ কথা দিতে না চান তবে তার সবচেয়ে বড় কারণ হতে পারে এই যে তিনি আসলে ভালই বাসেন না। একসঙ্গ থাকার কারণ আর যাই হোক না কেন তা প্রেম নয় তাই চূড়ান্ত কথা দেওয়ার প্রসঙ্গই উঠছে না। 

Click here for the best in baby advice
What do you think?
0%
Wow!
0%
Like
0%
Not bad
0%
What?
scroll up icon