Link copied!
Sign in / Sign up
27
Shares

পরিবারকে খুশি করতে আপনার জন্যে কিছু আমিষ রন্ধন রেসিপি


ঘরের আয়োজনে তো একটু বৈচিত্র্য থাকা চাই। বাড়িতে আসা অতিথির জন্য কেমন হবে রান্না-বাড়া, বা যদি কেউ নাও আসে, তাও পরিবারে নিজের স্বামী, শিশু ও অন্যান্য সদস্যদের জন্যে বানিয়ে ফেলুন কিছু নতুন ধরণের আমিষ রান্না।

১. চিতল মাছের কোপ্তা কারি

উপকরণ: পিঠের দিকের চিতল মাছ আধা কেজি, সেদ্ধ আলু মাঝারি তিনটি, আদা-রসুন বাটা ১ চা-চামচ, লঙ্কা গুঁড়া ১ চা-চামচ, নুন স্বাদমতো, ফেটানো টক দই চার চা-চামচ, টমেটো সস স্বাদমতো, কাঁচা মরিচ, নুন ও চিনি স্বাদমতো।

প্রণালি: চিতলের পিঠের মাছ কুরিয়ে নিয়ে তাতে সেদ্ধ আলু, আদা-পেঁয়াজ-রসুন বাটা, লঙ্কা গুঁড়া ও নুন দিয়ে মাখিয়ে মণ্ড বানিয়ে সেদ্ধ করে নিতে হবে। পছন্দমতো আকারে কেটে টুকরাগুলো ভেজে কোপ্তা বানাতে হবে।

এবার তেলে তেজপাতা ও গরম মসলা ফোড়ন দিয়ে প্রথমে পেঁয়াজ, রসুন, আদা বাটা, পরে লঙ্কা ও ধনিয়া গুঁড়া দিয়ে ভালোমতো কষাতে হবে। এতে ফেটানো দই ও টমেটো সস দিয়ে মিনিট খানেক নাড়াচাড়া করে ভাজা ভাজা কোপ্তাগুলো দিতে হবে। আন্দাজমতো নুন ও চিনি দিয়ে এতে গরম জল ও কাঁচা লঙ্কা দিয়ে ঢেকে রাখতে হবে।

কিছুটা ঝোল থাকা অবস্থায় নামিয়ে নিতে হবে।

২. পাঁঠার ঝাল মাংস

এটি পেঁয়াজ-রসুন ছাড়া মাংস রান্না করার একটি সনাতন পদ্ধতি।

উপকরণ: পাঁঠার মাংস এক কেজি, অন্য সব মসলা ও উপকরণ পরিমাণমতো।

প্রণালি: পাঁঠার মাংস প্রয়োজনমতো হলুদ, লঙ্কা, ধনিয়া, জিরা, আদা, দই, তেজপাতা, গরম মসলা, জয়ত্রী গুঁড়া, নুন ও তেল দিয়ে মাখিয়ে ম্যারিনেট করে নিন। তেলে তেজপাতা, কাজু-কিশমিশের পেস্ট দিয়ে একটু নেড়ে ম্যারিনেট করা মাংস দিয়ে কষান। মাংস প্রায় সেদ্ধ হয়ে আসছে—এমন সময় তেল ছেড়ে দিলে ভেজে রাখা আলু, কাঁচা লঙ্কা ও গরম জল দিয়ে ঢেকে রাখুন। ঝোল ঘন হয়ে এলে ভাজা জিরা গুঁড়া ছড়িয়ে দিয়ে নামিয়ে নিন।

৩. ভাপে সরষে ইলিশ

উপকরণ: একটা মাঝারি আকারের ইলিশ, সরষে বাটা পরিমাণমতো, কাঁচা লঙ্কা বাটা ১ চা-চামচ, লবণ, হলুদ গুঁড়া কম করে ও সরষের তেল আধা কাপ।

প্রণালি: সব মসলা ভালোমতো মিশিয়ে নিন। ইলিশের টুকরাগুলো এই মিশ্রণে ২০-২৫ মিনিট ম্যারিনেট করুন। একটি মাইক্রোওয়েভ-প্রুফ ছড়ানো পাত্রে সরষের তেল মাখিয়ে ম্যারিনেটসহ মাছের টুকরাগুলো পরপর সাজান।

কয়েকটি কাঁচা লঙ্কা মাছের ওপরে ছড়িয়ে পাত্রটি প্লাস্টিক র‌্যাপ দিয়ে ঢেকে সিল করে মাইক্রোওয়েভ ওভেনে ৫-৬ মিনিট স্টিম করুন। পাত্রটি বের করে সাবধানে ঢাকনা সরিয়ে মাছের টুকরা উল্টে দিয়ে আবার ৩-৪ মিনিট স্টিম করুন। দরকার হলে দ্বিতীয় বার স্টিম করার আগে তেল, লবণ, জল দিতে পারেন।

৪. চিংড়ি মাছ ও বাঁধা কপি ভাজা 

উপকরণ: বড় চিংড়ি - ১০ টি, বাঁধা কপি কুচি - ৪০০ গ্রাম, পিঁয়াজ কুচি - ৩ টা, কাঁচা লঙ্কা – ৫ টা, হলুদ সামান্য, নুন ও তেল পরিমাণ মত। 

পদ্ধতি: আগে থেকে পরিষ্কার করে রাখা চিংড়ি সামান্য নুন ও হলুদ দিয়ে প্রথমেই তেলে ভেজে নিন। এবার ভাজা চিংড়িতে বাঁধাকপি কুচি, পিঁয়াজ কুচি, কাঁচা লঙ্কা ও পরিমাণ মত নুন দিয়ে নেড়ে-চেড়ে ঢেকে দিন। একটু পরপর নেড়ে দিন। ভাজা ভাজা হয়ে গেলে নামিয়ে নিন।

৫. কৈ মাছের দোপেঁয়াজি

উপকরনঃ কৈ মাছ ৫-৬ টি, আদা বাটা ১চা চামচ, রসুন বাটা ১ চা চামচ, পেয়াজ বাটা ১ কাপ, ২-৩ টি পেয়াজ কুচি , হলুদের গুঁড়ো ১চা চামচ , লংকার গুঁড়ো ১-১/২ চা চমচ, সায়াবিন তেল ও নুন পরিমান মত, কাচা লঙ্কা ফালি ৫-৬ টি ও পরিমান মত ধনিয়া পাতা কুচি। 

প্রনালীঃ প্রথমে কৈ মাছ গুলো ভাল করে কেটে ধুয়ে নিন। তারপর ৫-১০ মিনিট নুন, হলুদ ও সামান্য বাটা মসলা দিয়ে মাখিয়ে রাখুন। এবার গ্যাসে একটি পাত্রে পরিমান মত তেল দিয়ে আঁচ দিতে থাকুন। তেল গরম হলে কৈ মাছ গুলো ভেজে অন্য পাত্রে তুলে রাখুন। এখন ঐ তেলে পেয়াজ কুচি ও কাঁচা লঙ্কা ফালি দিয়ে বাদামী রঙ এ ভেজে উপরের বাটা মসলা ও পরিমান মত নুন দিয়ে মসলা কষাতে থাকুন। মসলা কষানো হলে পরিমান মত জল দিন । মশলা ফুটে উঠলে ভাজা কই মাছ তার মধ্যে দিয়ে দিন। মাছের ঝোল ঘন হয়ে আসলে ধোনে পাতা কুচি দিয়ে ১ মিনিট পর গ্যাসের আচ কমিয়ে পাত্রটি নামিয়ে ফেলুন। এবার গরম গরম ভাতের সাথে কৈ মাছের দোপেঁয়াজি পরিবেশন করুন।

আমাদের এই পোস্টটি পড়ার জন্যে ধন্যবাদ। 

Tinystep Baby-Safe Natural Toxin-Free Floor Cleaner

Click here for the best in baby advice
What do you think?
0%
Wow!
0%
Like
0%
Not bad
0%
What?
scroll up icon