Link copied!
Sign in / Sign up
1
Shares


ত্বক এবং চুলের যত্ন নেওয়ার কথা বলে দিতে হয় না। পাশাপাশি নখের যত্ন নেওয়াটাও কিন্তু খুব দরকার। নখ যদি দুর্বল হয়, তাড়াতাড়ি ভেঙে যাওয়ার প্রবণতা থাকে, তাহলে সে নখকে সাজিয়ে তোলার চেষ্টাও জলে যাবে! তাই নখের দিকেও নজর দিন।

নখকে পুষ্টি জোগাতে তাজা ফল এবং সব্জি যথেষ্ট পরিমাণে খান। সঙ্গে পর্যাপ্ত জল। ক্যালসিয়ামের অভাবে নখ ভঙ্গুর হয়ে যায়। নিয়মিত ক্যালসিয়ামের জোগান পেতে দুধ খান। গাজরও খেতে পারেন।

হাত ধোওয়ার সময় ভাল হ্যান্ডওয়াশ ব্যবহার করবেন। নখের কিউটিক্‌ল ভাল রাখতে তেল বা ক্রিম লাগানোও খুব জরুরি। এক চা-চামচ করে অলিভ অয়েল আর মধু মিশিয়ে নখে আর কিউটিক্‌লে ভাল করে লাগিয়ে নিন। মিনিট পনেরো রেখে ধুয়ে ফেলুন। নখ আর কিউটিক্‌ল ময়েশ্চারাইজ করতে এই প্যাক দারুণ।

নখে যদি হলদেটে দাগ হয়ে গিয়ে থাকে, লেমন-বেকিং সোডা স্ক্রাব কাজে আসবে। এক টেবিল-চামচ বেকিং সোডা আর পরিমাণমতো লেবুর রস মিশিয়ে নিন। ফেনা-ফেনা ভাবটা চলে গেলে নখে লাগিয়ে রাখুন মিনিট দশেক। আলতো করে স্ক্রাব করতে করতে ঈষদুষ্ণ জলে ধুয়ে ফেলুন। নখ যদি চকচকে রাখতে চান, ১/৪ কাপ করে অলিভ অয়েল, বিয়ার এবং অ্যাপ্‌ল সিডার ভিনিগারের মিশ্রণ বানিয়ে মিনিট দশেক নখ ডুবিয়ে রাখুন। ধুয়ে ফেলুন ঈষদুষ্ণ জলে।

নখ ভেঙে যাওয়ার সমস্যায় ভুগছেন?

একটা ডিমের কুসুমের সঙ্গে এক চা-চামচ মধু আর সামান্য জল মিশিয়ে নিন। কয়েক ফোঁটা এসেনশিয়াল অয়েলও মেশাতে পারেন সুগন্ধের জন্য। মিনিট দশেক লাগিয়ে রেখে ধুয়ে ফেলুন।

রেড পেপার খেতে সুস্বাদু, আবার নখ বাড়াতেও কাজে আসে! আধ চা-চামচ রেড পেপারের টুকরো যদি হ্যান্ড ক্রিমে মিশিয়ে নখে লাগান, উপকার পাবেন। তবে মাসে একবারের বেশি ব্যবহার করবেন না। আর হাতের ত্বক যাঁদের খুব শুকনো, কিংবা নখের আশপাশে ক্ষত রয়েছে, তাঁরা এই মাস্ক লাগাবেন না।

Click here for the best in baby advice
What do you think?
0%
Wow!
0%
Like
0%
Not bad
0%
What?
scroll up icon