Link copied!
Sign in / Sign up
2
Shares

মেয়েটি রাস্তায় শুয়ে তড়পাচ্ছিল.... মাত্র ১৭ বছর বয়স! আসল ঘটনাটি কি?


যন্ত্রণার দ্বারা নির্যাতিত ছিল সে! মাত্র ১৭ বছর বয়স। এমন যন্ত্রনা যে বলে বোঝানো যায়না।  এমন অবস্থায় জন্ম দিল সে এক শিশুকে। ঝাড়খণ্ডের চান্দিল গ্রামের এক রাস্তায় ঘটে এই ঘটনা।

যখন এই মেয়েটি যন্ত্রনায় অসঝ্য ছটফট করে সন্তান জন্ম দেয় সেখান থেকে কমিউনিটি হেলথ সেন্টারটি কেবল ১০০ মিটার দূরত্ব ছিল, তা সত্বেও একবারের জন্যে কেউ এগিয়ে দেয়নি সাহায্যের হাত। সে নিজেই রাস্তায় পরে থাকা অবস্থায় ছেলে সন্তানটিকে জন্ম দেয়।

রাস্তায় চলা ফেরা করা মানুষের নজর যখন তার দিকে গেল তখন দেখা গেল যে মেয়েটির কাপড় রক্তে চুবচুবে এবং সে সন্তান প্রসব করছে।

পার্শবর্তী এলাকার কিছু মানুষের সাথে কথা বলে জানা গেছে যে মেয়েটি ওখানেই ঘুরে বেড়াতো ও কদিন ধরে খুব অসুস্থ ছিল, তার  ছিল এবং সে রাস্তায় পরে থাকতো। কিন্তু কেউ কোনোদিনও বোঝেনি যে তার ফল এই হতে পারে।

কিছু প্রত্যক্ষদর্শীরা জানালেন যে এমন অবস্থা দেখে তারা সঙ্গে সঙ্গে মেয়েটির চারপাশে কাপড় দিয়ে পর্দা করে দিয়েছিলেন এবং সন্তান  হওয়ার পর তাকে নিয়ে যায় সামনের নার্সিং হোমে যেখানে নার্সরা মা এবং শিশুকে ভর্তি নিতে রাজি হন না।

তাঁরা বলেন যে কোন ডাক্তারের মঞ্জুরী না থাকায় তাঁরা মেয়েটিকে হাসপাতালে ভর্তি নেবেন না। এমনকি ডাক্তাররাও অনুমান করেন যে মেয়েটিকে ঘর থেকে বের করে দেওয়া হয়েছে যার   তাঁর চিকিৎসা করতে।

প্রকৃতপক্ষে, মেয়ে একটি ছেলেকে ভালবাসতো কিন্তু সেই ছেলে তাকে প্রতারণা করে। পরে যখন সে জানতে পারে যে সে গর্ভবতী তখন বাড়ির বাকি সদস্যরা মেয়েটিকে বাড়ি থেকে বের করে দেন। তার পর থেকে সে কখনও কোন মন্দির বা কখনও রেলওয়ে স্টেশনে পরে থাকতো। আর তার পরই হয় এই ঘটনাটি। বর্তমানে সাধারণ মানুষের চাপে পরে ও একটি স্বচ্ছ সেবী সংস্থার দৌলতে এখন সে হাসপাতালে ভর্তি ও তার শিশুও চিকিৎসাধীন।

Click here for the best in baby advice
What do you think?
0%
Wow!
0%
Like
0%
Not bad
0%
What?
scroll up icon