Link copied!
Sign in / Sign up
29
Shares

মাসিকের সময় ট্যাম্পুনের ব্যবহার! প্যাডের মত, অথচ প্যাড নয়


মাসিকের সময় যত এগিয়ে আসে, নারীদের কষ্ট শুরু; প্যাডে তাদের দিন কাটে! প্যাড পরিহিত বস্তায় কখনও কখনও আমরা ভয় পাই যেমন দৌড়োতে বই যাতে জামাকাপড়ে দাগ না লেগে। আমরা প্রতিটি ধাপ যত্ন নিয়ে চলি এবং আমাদের নজর সবসময় প্যাডের ওপরেই থাকে। কিন্তু আজ আমরা এমন কিছুর সম্বন্ধে আপনাকে বলতে চাই যা প্যাডের তুলনায় সহজ এবং নিরাপদ!

ট্যাম্পুন কি এবং এটি কিভাবে কাজ করে?

প্যাডের মত ট্যাম্পুনও মাসিকের সময়গুলিতে ব্যবহার করা হয়। এটি কোমল তুলো দিয়ে তৈরি করা হয় যা আকারে বেশ লম্বা এবং যাতে এটি আপনার যোনিতে সহজেই ঢোকানো যায়। ট্যাম্পুন আপনার শরীর থেকে মাসিকের রক্ত ​​শোষণ করে নেয় যাতে তা আপনার শরীরের বাইরে না বের হয়। এটি যে কোন ঔষধ দোকানে আপনি পাবেন।

আপনার কি আকারের ট্যাম্পুন ব্যবহার করা উচিত?

যদি আপনি প্রথমবারের জন্য ট্যাম্পুন ব্যবহার করছেন তাহলে সঠিক হবে যদি আপনি পাতলা একটি ট্যাম্পুন ব্যবহার করেন কারণ এটি সহজে যোনির মধ্যে রাখা যাবে।

এটি একটি চাবির মত করে যোনির মধ্যে ঢোকান; কিভাবে?

১. সাবান দিয়ে ভাল করে হাত ধুয়ে মুছে ফেলুন এবং প্যাকেট থেকে টাম্পনটি বার করুন। নিশ্চিত করবেন যে যখন ট্যাম্পনটি বার করছে সেটি যেন ভালভাবে প্যাকেট করা থাকে। যদি না হয়, তবে আপনার সংক্রমণের ঝুঁকি থাকতে পারে।

২. ট্যাম্পন থেকে একটি স্ট্রিং ঝুলবে, এটি হালকা করে হাত দিয়ে টেনে এনে বের করে দেখুন যে এটি ছেড়া না হয়।

৩. আপনার সুবিধার জন্যে আপনি টয়লেট সীট বা একটি পাত্র নিয়ে বসতে পারেন না দাঁড়াতে পারেন। যেই আপনি মনে করবেন যে অবস্থানটি আপনার জন্য আরামদায়ক, ট্যাম্পুনের নীচের অংশটি ধরুন ও সুতোটি দৃশ্যমান রাখুন।

৪. আপনার যোনিতে আপনার একটি হাত রাখুন ও আরেকটি হাত দিয়ে ট্যাম্পুনটি যোনি ছিদ্রে ঢোকান।

৫. আপনার যোনির মধ্যে ট্যাম্পুনটি তখন অব্দি ভালোভাবে রাখুন যাতে আপনি কোনো বাধা না বোধ করেন।

৬. আপনার যোনিতে ঢুকে গেলেই ট্যাম্পুটিকে আঙুল দিয়ে ধাক্কা দিন, যাতে সেটি ভেতর অবধি ঢুকে যায়।

৭. মনে রাখবেন যে ট্যাম্পনের স্ট্রিংটি যোনির বাইরে কোনা থেকে বেরিয়ে আসে, কারণ যখন আপনি ট্যাম্পুনটি সরিয়ে ফেলতে চাইবেন, তখন এই স্ট্রিংটি টেনে নিয়ে আপনি নিচে টিম্পনটি টেনে আনবেন তারপর এটি বেরিয়ে আসবে।

৮. ট্যাম্পুন পড়ার আগে বা পরে ভালো করে হাত ধুতে ভুলবেন না

যদি আপনার যোনির ভিতরে ট্যাম্পুনটি হালভাবে প্রবেশ হয়ে থাকে তবে আপনি অস্বস্তি বোধ করবেন না, আর যদি অস্বস্তি বোধ করেন এর মানে হল যে আপনি সঠিকভাবে সেটি পারেননি। যদি এটি হয় তাহলে অন্য ট্যাম্পুন নিয়ে আবার চেষ্টা করুন। মাথা গরম করবেননা, ধৈর্য ধরুন।

ট্যাম্পুনের উপকারিতা

আকার- যদি আপনি মাসিক নিয়ে কারুর সাথে কথা বলতে দ্বিধা বোধ করেন, তাহলে আপনার জন্য এটি হল শ্রেষ্ঠ। টেম্পনগুলি এত ছোট হয় যে আপনার কারুর সামনে দিয়ে বাথরুমে যেতে অসুবিধা হবে না, যেটা প্যাড নিয়ে হয়। | আপনি বাথরুম এটি গোপন জায়গায় না রেখে অনায়াসে হাতে করে নিয়ে যেতে পারবেন।

ভেজাভাব থাকেনা - আপনি নিশ্চই এটা পছন্দ করবেন না যে আপনার প্যান্টি সব সময় ভেজা থাকুক, বা আপনি হয়তো রক্ত দেখতে পছন্দ নাও করতে পারেন। এই অনুভূতি বেশ সাধারণ এবং এই অনুভূতি হওয়া খুবই স্বাভাবিক এবং এগুই একমাত্র ট্যাম্পুন বন্ধ করতে পারে কারণ এটি আপনার যোনি ছেড়ে যাওয়ার আগে রক্ত ​​শোষণ করে, এবং এই কারণে আপনি শুষ্কতা অনুভব করেন।

চলাচল করার স্বাধীনতা- ট্যাম্পুন আপনাকে আরামদায়কভাবে হাঁটাচলা করার স্বাধীনতা দেয়, যা আপনি প্যাড থেকে পেতে পারেন না কারণ ট্যাম্পুনতার জায়গা থেকে সরে যেতে পারে না, তবে প্যাডে এই ভয়টি থাকে। এমনকি ট্যাম্পুন পরেআপনি সহজেই সাঁতার কাটতে পারেন, কোনো চিন্তা ছাড়া; আপনার কাপড়ে লাল দাগ পড়বেনা।

আপনি কোনোকিছু অনুভব করতে পারবেন না - এটি ট্যাম্পুন ব্যবহার করার সবচেয়ে বড় সুবিধা যে আপনি ভুলেই যাবেন যে আপনার মাসিক চলছে কারণ তারা রক্তের অনুভূতি ছাড়াই রক্ত ​​শোষণ করে নিচ্ছে। যদি যোনিতে ট্যাঁম্পুনটি ভালভাবে ঢোকানো হয়, তবে আপনার সত্যি কোনো অনুভূতি থাকবে না, যার মানে হল আপনি আপনার দিনটি উপভোগ করতে পারবেন মাসিক হওয়ার সত্ত্বেও।

তাই এগিয়ে যান এবং এই নিরাপদ জিনিসটি ব্যবহার করুন। যদি আপনি এটি থেকে আরাম না পান, তাহলে প্যাড ব্যবহার করতে থাকুন।

এই পোস্টটি সকলের সাথে সেরা করুন এবং এই চমৎকার জিনিস সম্পর্কে অন্য মহিলাদের বলুন!

 

মাসিক নিয়ে ৭ টি কথা যা বিশ্বাস করা বন্ধ করতে হবে

 

কিভাবে এবং কেন নারী মাসিক পর্যায়ে থাকে- ভুল ধারণা রাখবেন না সম্পূর্ণ ভাবে জানুন

 

প্রসবের পর মাসিক রক্তপাত কেমন হবে

Click here for the best in baby advice
What do you think?
0%
Wow!
0%
Like
0%
Not bad
0%
What?
scroll up icon