Link copied!
Sign in / Sign up
1
Shares

মানবদেহ সম্পর্কে এই ২০টি আশ্চযজনক কথা জানতেন কি?

মানুষের শরীর একটি সুন্দর নির্মিত কাঠামো যা তার নিজস্ব ভাবে কাজ করে। সবচেয়ে ভাল দিক হল যে শুধুমাত্র নারীই তার গর্ভের মধ্যে একটি সম্পূর্ণ মানব সত্তাকে জন্ম দিতে এবং পুষ্ট করতে পারে! প্রকৃতি কখনও আমাদের বিস্মিত হওয়া থেকে ব্যর্থ করে না!

তাই এখানে আপনার শরীর সম্পর্কে ২০ টি দারুন তথ্য আছে:

১.আপনার হৃত্স্পন্দন আপনি শুনতে পারেন সঙ্গীত এর শব্দের মতন ।

২. আপনার হাড়ের 31% মাত্র জল দ্বারা গঠিত

৩. পৃথিবীতে মানুষের সংখ্যার তুলনায় আপনার মুখের মধ্যে আরও বেশি ব্যাকটেরিয়া আছে।

৪.আপনার বিছানা নীচে আপনি যে ধুলো গুলি দেখতে পান সেগুলি আসলে কিছুই না , আপনার মৃত চামড়া

৫. আপনার মৃত্যুর 3 দিন পর, পর্যন্ত আপনার পেটর মধ্যে যে এনজাইম থাকে তার দ্বারা খাদ্য পরিপাক হয় যেগুলি আপনি রাতের খাবারে খেয়েছিলেন সেগুলি।

৬.আমাদের সবার চোখে একটি অন্ধ বিন্দু আছে ,আমাদরে মস্তিস্ক সাি ফাক পূরণ করে।

৭. আপনার মস্তিষ্কটি আসলে ঘটে যাওয়া ঘটনার ছবিগুলি রেজিস্টার করার জন্য 13 মিলিসেকেন্ড সেকেন্ড সময় নেয়। তাই মূলত, আপনি এখনও অতীতে বসবাস করছেন

চিন্তা করুন!

৮.আপনার গর্ভেও শিশু কাঁদে কিন্তু সোনা যে না কারণ তার চারপাশে একটি তরল পদার্থ থাকে।

৯. আপনার নাক 50,000 scents মনে করার ক্ষমতা রাখে যদিও এটা কুকুর এর মতো এত সংবেদনশীল নয়।

১০. গর্ভধারণ হরমোন সাধারণত আপনার নখ এবং চুল জন্য অলৌকিক ঘটনা ঘটায় । চুল ঘন এবং বৃহত্তর এবং নখ আরো শক্তিশালী হয়ে ওঠে । কিন্তু একবার সন্তান প্রসবের পর , সব নিচে নেমে আসে।

এই অবস্থায় আপনি আপনার সৌন্দর্যকে উপভোগ করুন।

১১.আপনার কোরে আঙুল সত্যিই গুরুত্বপূর্ণ কারণ এটি ছাড়া, আপনি আপনার শরীরের শক্তি 50% হারাবেন।

১২. হাসির জন্য 17 টি পেশী লাগে এবং ভ্রূকুটির জন্য 43টি । সুতরাং, এখন আপনার হাসির একটি কারণ আছে!

১৩. যোনির ভিতরের দেয়াল তৈরি করে ত্বক কোষ যা আপনার মুখের ভিতরেও আছে।

১৪. গর্ভবতী নারীদের হাড় ভাঙার প্রবণতা কারণ হিটলিন নামক হরমোন। এটি আপনার জোড়াগুলিকে নরম করে দেয় যাতে আপনার হিপস এবং পেলভিজ প্রসবের জন্য প্রসারিত হতে পারে।

১৫. খাবার না খেয়ে আপনি সপ্তার পর সপ্তা বেঁচে থাকতে পারবেন কিন্তু না ঘুমিয়ে মাত্র ১১ দিন বাঁচতে পারবেন। সেইজন্য চিরকালের মতো ঘুমিয়ে না পরে যান শুভরাত্রি বলে ঘুমাতে যান।

১৬.যদি আপনার হৃদয় টি শরীর থেকে বার করে নেওয়া হয়ে তাহলেও সেটি চলবে কারণ তার নিজস্ব একটা বৈদ্যুতিক সংকেত আছে।

১৭.প্রতি 10 দিন অন্তর আপনার স্বাদ কুঁড়ি প্রতিস্থাপিত হয় ।

১৮. আপনার লোম তোলার পর বা কামানোর পর কোনো আপনার কেশ আরো বেশি ঘন হয়ে ওঠে তার কোন বৈজ্ঞানিক ব্যাখ্যা নাই।

১৯.আপনার ফুসফুস ৫ মিনিট পর্যন্ত অক্সিজেন ঘরে রাখতে পারে।

২০.সকাল বেলা খালি পেতে ব্যায়াম করলে অন্য সময়ের তুলনায় ২০% বেশি ক্যালোরি ঝরে। 

Click here for the best in baby advice
What do you think?
0%
Wow!
0%
Like
0%
Not bad
0%
What?
scroll up icon