Link copied!
Sign in / Sign up
3
Shares

খাসির মাংস রান্নার পরে নরম রাখার ৪টি বিশেষ উপায়


রবিবারের দুপুর মানেই বাঙালির পাতে গরম ভাত আর মাংস। স্বাস্থ্যের কথা মাথায় রেখে মুরগির মাংসের বিক্রি বাড়লেও, বাঙালির কাছে চিরকাল পাল্লা ভারী খাসির মাংসের। আর সেই মাংসের টুকরো যদি মুখে দিলেই গলে যায় তা হলে রবিবারের দুপুরের ভাতঘুমও সার্থক। কিন্ত এমনটা খুব কমই হয়ে থাকে। বরং সেই এক টুকরো মাংস চর্বণ করতে গিয়ে এবং দাঁতের মাঝে আটকে পড়া মাংস বের করতে করতেই দিন কাবার হয়ে যায়। তখন ঝগড়া বাধে জিভ ও দন্তরুচি কৌমুদীর মধ্যে। তাই শুধু খাওয়ার সময় নয়, খাবার পরেও খাসির মাংসের রসাস্বাদন করতে জানতে হবে। আর তার জন্য জেনে নিতে হবে খাসির মাংসকে তুলতুলে করে তোলার চারটি সহজ উপায়।

• কোরমা, রেজালা, পায়া বা বিরিয়ানি যাই হোক, সবসময়ই তিনি মাংস ঠিকঠাক সেদ্ধ হচ্ছে কি না সেদিকে খেয়াল রাখেন তিনি। রান্না করার আগে, তিনি মাংসের টুকরোগুলিকে কিচেন হ্যামার দিয়ে পিটিয়ে নেন। শুধু তাই নয়, মাংসের টুকরোগুলিকে ঠিকভাবে কাটতে জানতে হবে। মাংসের টুকরোরগুলির মাসল ফাইবার কোনদিক কীভাবে রয়েছে, তা বুঝে তাকে কাটতে হবে।

• রান্নার আগে মাংসের টুকরোগুলিকে দই বা কাঁচা পেঁপের পেস্ট দিয়ে ম্যারিনেট করে রাখুন অন্তত ২-৩ ঘন্টার জন্য। সময় বেশি থাকলে ৬-৭ ঘন্টার জন্য রেখে দিন। গলৌটি কাবাব বা কাচ্চি গোস্ত কি বিরিয়ানি বানাতে হলে, প্রায় সারা রাত ম্যারিনেট করে রেখে দিন। রান্নার মধ্যে কাঁচা পেঁপে, বাটারমিল্ক, দই, লেবু, নুন ও গোলমরিচ ব্যবহার করুন। এতে মাংসের শক্ত ফাইবার সহজে নরম হবে।

• খাসির মাংস কখনই তাড়াহুড়ো করে রাঁধবেন না। অনেকক্ষণ ধরে মাংসকে কষুন। ইউরোপেও এই একই পদ্ধতি রান্না করা হয়। ঢিমে আঁচে বহুক্ষণ ধরে রান্না করা হয় মাংস।

• দই বা পেঁপে দিয়ে ম্যারিনেট না করলে রান্নার অন্তত এক ঘন্টা আগে থেকে মাংসে নুন মাখিয়ে রাখুন। পারলে এক ঘণ্টার বেশি নুন মাখিয়ে রাখুন। নরম মাংস রান্না করার এটিই সবথেকে সহজ পদ্ধতি।         

Click here for the best in baby advice
What do you think?
0%
Wow!
0%
Like
0%
Not bad
0%
What?
scroll up icon