Link copied!
Sign in / Sign up
8
Shares

গুলি খাওয়ার পরেও সন্তান প্রসব করতে সক্ষম হলেন সেনা পত্নী!

জীবন সত্যিই মাঝে মাঝে একটি থ্রিলার চলচ্চিত্রের মতো হয়ে ওঠে এবং যেকোনো অপ্রত্যাশিত পরিবর্তন ঘটতে পারে। আপনার নিয়ন্ত্রণে তাই কিছুই নেই। আপনি নিশ্চই সাংজুয়ান মিলিটারি ক্যাম্পের সন্ত্রাসী হামলার সম্পর্কে শুনেছেন। বর্তমানে এলাকাটি সশস্ত্র জঙ্গি ও সন্ত্রাসীদের দ্বারা আক্রান্ত। সর্বত্র রক্তপাত ছেয়ে গেছে, কিন্তু আজকের এই এক বিস্ময়কর সংবাদটি শুনলে আপনি অবাক হয়ে যাবেন!

৩৫সপ্তাহের গর্ভবতী মহিলা শাহজাদা খান তার আবাসিক ভবনে হাঁটছিলেন যেই মুহূর্তে তিনি সন্ত্রাসীদের দ্বারা মারাত্মকভাবে গুলিবিদ্ধ হন। তাকে অবিলম্বে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়, যেখানে সেনা ডাক্তাররা আহত মায়ের এবং তার শিশুকে বাঁচাতে একসাথে দলবদ্ধ হয়ে প্রানপন চেষ্টা করেন। তাঁরা শেষ পর্যন্ত এটাও দেখেছেন যে শিশুটির নাড়ির রেট ধীরে ধীরে কমে আসছে। শেষ পর্যন্ত তাঁরা সেই প্রসব সুস্থভাবে ঘটাতে সফল হয়েছেন।

এনডিটিভির একটি প্রতিবেদন অনুযায়ী ৩৫ সপ্তাহের গর্ভবতী শাহজাদা খানকে হেলিকপ্টারে করে ক্যাম্প থেকে সামরিক হাসপাতালে পাঠানো হয়েছিল, যেখানে সেনাবাহিনী জানায় যে তার চিকিৎসকরা তার জীবন এবং তার সন্তানের জীবন বাঁচাতে সক্ষম হয়েছেন।

নবজাত শিশুটিকে বর্তমানে 'অলৌকিক শক্তি সম্পন্ন শিশু' বলে প্রশংসা করা হচ্ছে। এক ভয়াবহ রাতে ডাক্তারদের কঠোর প্রচেষ্টার পর, শাহজাদা সি-সেকশনের মাধ্যমে একটি সুস্থ শিশু কন্যাকে জন্ম দেয়। সৌভাগ্যক্রমে, উভয় মা এবং মেয়ে নিরাপদ।

শাহজাদা এর স্বামী ভারতীয় সেনাবাহিনীর একজন সদস্য। শাহজাদার স্বামী সেদিন সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে লড়াই করছিলেন এবং যতটা সম্ভব তাঁর সন্তান সম্ভব স্ত্রীকে নিরাপদ রাখার চেষ্টা করেছেন। উনি নিজেও কম জখম হননি।

আসলে উনি এবং ওনার স্ত্রী মনে করছেন যে ওনাদের এই দৈবিক শক্তি সম্পন্ন কন্যাই তাঁদের জীবন বাঁচাতে পেরেছে।

জয় হিন্দ!

Click here for the best in baby advice
What do you think?
0%
Wow!
0%
Like
0%
Not bad
0%
What?
scroll up icon