Link copied!
Sign in / Sign up
0
Shares

ঘরোয়া উপায়ে পান গোলাপি স্তনবৃন্ত


স্তনের বিভিন্ন রঙের হতে পারে যেমন গোলাপী, লাল, বাদামি, কালো, ইত্যাদি। স্তন জন্ম থেকে বার্ধক্য, গর্ভাবস্থাকে থেকে বয়ঃসন্ধি পর্যন্ত বিকশিত হয়। প্রাথমিকভাবে স্তন গোলাপী রঙের হয়। রঙ এবং আকার শারীরিক পরিবর্তনের সঙ্গে বিভিন্নমুখী হতে শুরু করে। অনেক কারণ স্তনের রঙের পরিবর্তন ঘটায়। এর মধ্যে কিছু সাধারণ কারণ যেমন জিনগত অবস্থা, মাসিক, গর্ভাবস্থা, বয়ঃসন্ধি , বুকের দুধ খাওয়ানো, ওষুধ, চামড়া মর্দন ইত্যাদি অন্তর্ভুক্ত করা যায়। স্তনের ত্বকের পার্শ্ববর্তী অংশের এউমেলানিন বা বাদামী রঙ্গক এবং ফেওমেলানিন, লাল রঙ্গক-- এই দুই কারণে নিয়ন্ত্রিত হয়। এই রঙ্গকের বিস্তার আমাদের ব্রণ বা ফোড়ার চারপাশের গোলাকার অংশকে লালচে করে দেয়।

স্তনের রঙ চামড়ার প্রকৃতির উপর নির্ভর করে, যেটা আবার বংশগ ত ভাবে পরিবর্তিত হতে পারে। ককেশীয় অঞ্চলে গোলাপী স্তণ, দক্ষিণপূর্ব এশিয়াতে বাদামী স্তণ, আফ্রিকার কালো স্তণ ইত্যাদি দেখা যায়। পুরুষরা সাধারণত গাঢ় রঙের স্তন যুক্ত নারী বেশি পছন্দ করে। তাই আপনি এই সমাধান গুলি ব্যবহার শুরু করার আগে নিশ্চিত করুন যে এ ব্যাপারে আপনার সঙ্গীর এর সম্মতি আছে কি না! ইউ এস -এর সাদা চর্ম যুক্ত ১২% সুন্দরীরা বিশ্বাস করে তাদের স্তনের জন্য গাঢ় রং প্রয়োজন কারণ তারা স্বাভাবিক ভাবেই গোলাপি রং পায়। তারা বিশ্বাস করে গাঢ় রং অধিক যৌন আবেদন ময় হয়।


গোলাপী স্তনের জন্য ঘরোয়া প্রতিকার 

উপরের সব তথ্য পড়ার পরও যদি আপনি এখনও আপনার সিদ্ধান্ত অটল থাকেন, তাহলে আমরা আপনার স্তনকে উজ্জ্বল এবং গোলাপি করার জন্যে কিছু সমাধান জানাতে পারি:

১. লেবুর নির্যাস 

লেবুর রস এই কারণে বহুল পরিমাণে ব্যবহার করা হয়। লেবুর রস পিষে নিন এবং মধু ও দই যোগ করুন। এটি স্তনের উপর প্রয়োগ করুন এবং শুকিয়ে যাওয়ার জন্যে ৩০ মিনিট সময় দিন। তারপর এটাকে জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে একবার এই পদ্ধতি প্রয়োগ করুন।


২. বাতাবি লেবু

লেবুর রস বের করে এতে মধু যোগ করুন। এই মিশ্রণ আপনার স্তনের বোঁটায় প্রয়োগ করুন এবং এটি শুকিয়ে যেতে ৩০ মিনিট সময় দিন। এটাকে মুছে ফেলুন এবং সপ্তাহে একবার এই পদ্ধতি প্রয়োগ করুন। লেবু আম্লিক হওয়ায় আপনার ত্বক থেকে মৃত কোষ তুলতে সাহায্য সাহায্য করে এবং আপনার স্তনকে দেয় নবীন চেহারা।


৩. ময়েসটনার 

লেবুর সাথে আপনি লাইটনিং ক্রিমও ব্যবহার করতে পারেন। আপনার স্তনের উপর এরকম মলম যেমন ভেসলিন, লিপ বাম বা শিয়া মাখন প্রতি রাতে লাগান, এটা আপনার স্তনকে সতেজ রাখে। পরের দিন সকালে স্নান করার সময়, এই অংশটি ভাল করে পরিষ্কার করে নিতে ভুলবেন না। এটি বিশেষত ব্রণ প্রতিরোধ করে।


৪. বাদাম

বাদাম আপনার স্তনের রং পরিবর্তন করতে খুব সাহায্য করে। আপনি ব্লেন্ডারে দুধ ও বাদাম ভাল করে পিষে নিন এবং নির্দিষ্ট অংশে প্রয়োগ করুন। এছাড়াও আপনি বাজার থেকে বাদাম তেল কিনতে পারেন এবং নির্দ্বিধায় ব্যবহার করতে পারেন। আপনি এটাকে এক ঘন্টা রেখে দিন এবং তারপর এটা আপনি মুছে ফেলুন এবং পরিষ্কার করে ফেলুন। উল্লেখযোগ্য ফলাফল না পাওয়া পর্যন্ত এটি পুনরাবৃত্তি করতে থাকুন।



Click here for the best in baby advice
What do you think?
0%
Wow!
0%
Like
0%
Not bad
0%
What?
scroll up icon