Link copied!
Sign in / Sign up
11
Shares

ঘরোয়া উপায়ে পা কোমল ও রাখতে করুন ফুট স্ক্রাব

কে  সুন্দর থাকতে? তার ওপর মহিলাদের জন্যে সৌন্দর্য্য হল অলংকার। তবে সুন্দর্য্য চর্চা করতে গিয়ে বেশিরভাগ সময় আপনি হয়তো মুখ তো বড়জোর হাত অবধি যত্ন নেন। সে পার্লারে গিয়েই হোক, বা ঘরোয়া উপায় নানা মাস্ক, প্যাক বানিয়েই হোক বা দামি ক্রিম বা জেল মেখেই হোক। কিন্তু কখনো ভেবে দেখেছেন কি যে আপনি যতটা যত্ন আপনার মুখের দিকে নিচ্ছেন, তার সিকিভাগও আপনি পায়ের দিকে দিতে পারেন না? অথচ আপনার শরীরের যেকোনো অঙ্গের তুলনায় পা কিন্তু সবথেকে বেশি ক্লান্তি নেয় ও সারাদিনের ধকল, ধুলো, ময়লার সরাসরি শিকার হয়। তাই দেরি না করে চলুন ঘরেই বসেই করে ফেলুন ফুট স্ক্রাব। পা কোমল, নরম ও সুন্দর রাখার জন্যে ফুট স্ক্রাবের কোনো তুলনাই নেই। নিচে আপনার জন্যে রইল ৪ রকম স্ক্রাব ও মাস্ক তৈরির পদ্ধতি।


১। অলিভ অয়েল ও মধু, চিনির স্ক্রাব 

যা যা লাগবে: চিনি ৩ টেবিল চামচ, লেবুর রস ২ টেবিল চামচ, মধু ২ টেবিল চামচ, অলিভ অয়েল ২ টেবিল চামচ

পদ্ধতি: একটি পাত্রে সবগুলি উপাদান একসাথে নিন ও ভালো করে মিশিয়ে নিন যতক্ষণ না এটি নরম একটি পেস্ট হয়ে ওঠে। এবার একটি বড় গামলায় উষ্ণ গরম জল নিয়ে আপনার পা দুটি ১৫ থেকে ২৫ মিনিট ডুবিয়ে রাখুন। এতে আপনার পায়ের আলগা ময়লাগুলো নরম হয়ে যাবে; তারপর পাত্র থেকে পেস্টটি নিয়ে আপনার পায়ে ধীরে ধীরে লাগান এবং আলতো করে হাত দিয়ে ঘষতে থাকুন। এভাবে অন্য পায়েও লাগান। কিছুক্ষণ ম্যাসেজ করে পা ধুয়ে ফেলুন। এই স্ক্রাবটি আপনার পায়ের মৃত কোষ ও শক্ত ভাব দূর করে পা কোমল ও তরতাজা করে তোলে


২। কলার স্ক্রাব 

যা যা লাগবে: পাকা কলা ১টি, উষ্ণ গরম জল,

পদ্ধতি: পাকা কলাটি ভালো করে চটকে আপনার পায়ের গোড়ালিতে লাগান ও ২০ মিনিট অপেক্ষা করুন। এরপর উষ্ণ গরম জল দিয়ে পা ধুয়ে ফেলুন।

যাদের পায়ের গোড়ালি ফাটা বা খসখসে হয়ে যাওয়ার সমস্যা আছে তাদের জন্যে এই বিষের স্ক্রাব বেশ কার্যকরী। এতে পায়ের গোড়ালি নরম কোমল আর সুন্দর হয়ে উঠবে কারণ কলা আপনার পায়ের জন্য ভালো একটি ফুট ময়েশ্চারাইজার হিসেবে কাজ করে।


৩। পেট্রোলিয়াম জেলি ও লেবুর রসের স্ক্রাব 

যা যা লাগবে: পেট্রোলিয়াম জেলি ২ টেবিল চামচ, অর্ধেকের অর্ধেক লেবুর রস, উষ্ণ গরম জল, পায়ের সুতির মোজা

পদ্ধতি: পেট্রোলিয়াম জেলি ও লেবুস রস দিয়ে ঘরোয়া উপায় দারুন একটি ফুট ময়েশ্চারাইজার তৈরী করা যায়। এই দুটি উপাদান একসাথে নিয়ে ভালোভাবে মিশিয়ে নিতে হবে। প্রথমে একটি গামলায় উষ্ণ গরম জল নিয়ে ১৫মিনিট পা ডুবিয়ে রাখুন যাতে পায়ের আলগা ময়লা দূর হয়ে যায়; তারপর রাতে ঘুমোনোর আগে এই ময়েশ্চারাইজার পায়ে লাগিয়ে আলতো ম্যাসাজ করে পায়ে মোজা দিয়ে শুয়ে পড়ুন। পরদিন সকালে দেখবেন আপনি নিজের পা নিজেই চিনতে পারছেন না, এত সুন্দর!


৪।  অলিভ অয়েল ও ল্যাভেন্ডার অয়েলের স্ক্রাব 

যা যা লাগবে: অলিভ অয়েল ২ টেবিল চামচ, ল্যাভেন্ডার অয়েল ৩ থেকে ৪ ফোঁটা

পদ্ধতি: অলিভ অয়েল ও ল্যাভেন্ডার অয়েল একসাথে ভালোভাবে মিশিয়ে নিন এবং এটি আপনার যখন প্রয়োজন বা ইচ্ছে তখনই ব্যবহার করুন। ব্যবহার করার আগে এই ময়েশ্চারাইজারটি অবশ্যই ভালো ভাবে ঝাঁকিয়ে নেবেন। এটি ব্যবহার করার ফলে আপনার পায়ের সৌন্দর্য কয়েক গুণ বেড়ে যাবে।


কয়েকটি স্পেশাল টিপস 

১. সঠিক পরিমানে জল পান করুন ও তার সাথে টাটকা সবজি ও ফল খান।

২. নিয়মিত পায়ের যত্ন করুন, লক্ষ্য রাখবেন পায়ের নখ যাতে বেশি বড় না হয়।

৩. শুধু মুখে নয় পায়েও ময়েশ্চারাইজার লাগান।

৪. পায়ে সব সময় হিলজুতো পড়া বন্ধ করুন। একেবারে পাতলা সোলের জুতোও পরবেন না।

৫.  গরমকালে পায়ে বেশি ঘাম হয়, তাই বাইরে থেকে এসে অবশ্যই পা ঢুকে ভুলবেন না।


Click here for the best in baby advice
What do you think?
0%
Wow!
0%
Like
0%
Not bad
0%
What?
scroll up icon