Link copied!
Sign in / Sign up
0
Shares

ঘরেই তৈরী করুন আপনার প্রিয় বাগান

আমাদের অনেকের বাগানের শখ হলেও শহরের ব্যস্ততার পরিবেশে হয়ত হয়ে ওঠে না। বাগান করে নিজের ঘরটি অন্য রকমভাবে সাজাতে পারি। এর ফলে আপনার ঘরের বাতাস পরিশুদ্ধ হবে। আবার কিছু কিছু ইনডোর প্লান্ট আছে যা এন্টিঅক্সিডেন্ট হিসেবে কাজ করে। এবং এটি আপনার ঘরকে অন্য রকম দেখাবে। তবে আপনি যদি ঠিকভাবে প্ল্যান করতে না পারেন তা হলে কিন্তু উল্টো হতে যেতে পারে। কারণ এলোমেলোভাবে গাছ সাজালে ভালো নাও লাগতে পারে। সেই কারণে জেনে নিন কি ভাবে সাজাবেন। 

আপনার জন্য  ইনডোর প্লান্ট ও সৌন্দর্য বর্ধনকারী গাছ হিসাবে ব্যবহার করা যায়, এমন বিশেষ ধরণের গাছ যা এসি রুমে বেচে থাকতে পারে যেমন সিলভার কুইন, হাইডেনজিয়া, পান্থপথ, চায়নিজ পাম, পিচুটিয়া পাম, রেড পাম, ফনিক্র গাস, কচু পাস, বাঁশ পাতা, ড্রাসিলা, রাসি পাস, মনোট্রিট, ড্রাসিনা, গোলডেন ড্রাসিনা, টেরিস, ক্যাকটাস, আলপেনিয়া, বিভিন্ন প্রকার অর্কিড এবং ফার্ন এর প্রজাতি, পাতাবাহার এর বিভিন্ন প্রজাতি, মানিপ্লান, বনসাই, ফরচুন ট্রি, মালপুচিয়া, লাভলিক, এরিকা পাম, তুলসি ইত্যাদি দিয়ে ঘর সাজাতে পারেন। ঘরের বিভিন্ন জায়গার আকার ও উচ্চতা অনুযায়ী সাজিয়ে রাখা যায় এই ধরণের গাছগুলো।

আপনার  দরজা বা লিফট এর সামনে রাখা যায় মাঝারি আকৃতির গাছ। আকটু বড় ধরনের গাছ রাখা যায় বসার ঘরের কর্ণার , অপেক্ষাকৃত ছোট গাছ রাখা যায় শোবার ঘরে ,  পাম, পাতাবাহার, তুলসি রাখা যায় খাবার ঘরে। লো-হাইট এর টেবিলে ক্যাকটাস, বনসাই।  জানালা ও বারান্দার ঝুলিয়ে দেয়া যায় ঝুলন গাছ। বিভিন্ন প্রকার ফার্ণ ও লতানো উদ্ভিদ ব্যবহার করা যায় ঝুলানো গাছ হিসাবে। ছোট ছোট মাটি, প্লাস্টিক বা বাঁশের তৈরি টবে করে জানালা ও বারান্দার গ্রীল এর সাথে ঝুলানো যায় গাছগুলো। প্লাস্টিক বা টিনের কন্টেইনারে জল ভর্তি করে ঘরের কর্ণারে রাখা যায় জলে জন্মে এমন গাছ।

 

গাছ লাগানোর  জরুরি  হচ্ছে যত্ । অল্প আলো ও অল্প জায়গায় জন্মানো এসব ইনডোর প্লান্ট এর পরিচর্যার দিকে লক্ষ দিতে হবে। এসব গাছ লাগানোর জন্য বেলে ও বেলে-দোঁআশ মাটি উপযুক্ত। মাটির সাথে জৈব সার সমান ভাবে মিশিয়ে দিতে হবে। বাজারে সুন্দর ডিজাইন করা বিভিন্ন ধরণের তৈরি টব পাওয়া যায়। যেহেতু জায়গা আনেক কম সেহেতু অপেক্ষাকৃত ছোট ও মাঝারি আকৃতির টব ভাল। 

ঝোলানো গাছের জন্য  মাটি বা প্লাস্টিকের টব ব্যবহার করা ভাল। মাটি ও প্লস্টিক টবের উপরের কোনাগুলো ছিদ্র করে গাছসহ টবটিকে কোনো কিছুর সাহায্যে ঝুলিয়ে দিলেই হবে।  গাছগুলো এমন ভাবে ঝুলাতে হবে যাতে সহজে জল দেয়া এবং পরিচর্যা করা যায়। প্রয়োজন অনুযায়ী গাছে জল দিতে হবে। টবের মাটি ভেজা থাকলে জল না দেয়াই ভাল। অতিরিক্ত জল দিলে গাছ নষ্ট হয়ে যেতে পারে। মাঝে মাঝে স্প্রেয়ারের সাহায্যে গাছের পাতা ধুয়ে দিলে ভাল হয়। সপ্তাহে একবার গাছগুলো রোদে দিতে হবে। অথবা ২-৩ দিন পর পর রোদে দিলে ভাল হয়। মাঝে মাঝে গাছের গোড়ার মাটি উল্টেপাল্টে দিতে হবে।

 

Click here for the best in baby advice
What do you think?
0%
Wow!
0%
Like
0%
Not bad
0%
What?
scroll up icon