Link copied!
Sign in / Sign up
0
Shares

পুজোয় নতুন জুতোর পরার সাথে পায়ে ফোসকার সমাধান


পুজোয় নতুন পোশাকের সাথে নতুন জুতো থাকবেই, এবং তার সাথে থাকবে পায়ে ফোসকা। ফোসকা নিয়ে ঠাকুর দেখা কষ্টকর হলেও বন্ধ তো করা যাই না,

তবে পায়ে ফোসকা পরলে কি করবেন জানুন।

১. নারকেল তেল

এই উপায় আমাদের সবারই প্রায় জানা। জুতো পরার আগে পায়ে এবং জুতোতে ভালো করে নারকেল তেল লাগিয়ে নিন। যদি ভুলে যান তবে পরেও লাগাতে পারেন, তবে তাতে ফোসকার ব্যথা পাবেন, বরং আগেই লাগানো ভালো।

২. এলোভেরা জেল

পায়ে ভালোকরে এলোভেরা জেল লাগান। এই জেল ফোসকার দাগ থেকে মুক্তি দেবে এবং ব্যথাও কমাবে।

৩. অ্যাসপিরন

বাড়িতে অ্যাসপিরন থাকলে তা জলের সঙ্গে গুলে একটি পেস্ট বানান। সেই পেস্ট ফোসকার উপরে লাগান। পেস্টটি শুকিয়ে গেলে ধুয়ে ফেলুন। এতে ফোসকা ফেটে গিয়ে তাড়াতাড়ি শুকোবে ও দাগও দূর হবে।

৪. অলিভ অয়েল এবং আমন্ড অয়েল

ফোসকাতে খুব যদি বেশি ব্যথা হয় তবে এই দুটি তেলের মিশ্রণ মিশিয়ে ফোসকাতে লাগান। খুব তাড়াতাড়ি ব্যথা কমবে।

৫. টুথ পেস্ট

সব থেকে ভালো উপায় টুথপেস্ট, ফোসকার স্থানে টুথপেস্ট লাগিয়ে এক ঘণ্টার জন্য রেখে দিন। তার পরে ধুয়ে নিন, আরাম পাবেন।

৬. মধু

ফোসকার ওপরে মধু লাগিয়ে রাখুন, উপকার পাবেন।

৭. বরফ

পায়ে ফোসকার হাত থেকে মুক্তি পেতে সবথেকে সহজ উপায় হল ফোসকার উপরে বরফ লাগানো। ব্যথা তো কমবেই, ফোসকা তাড়াতাড়ি শুকোবেও।

৮. নিম ও হলুদ

নিম পাতা বাটা এবং কাঁচা হলুদ বাটার পেস্ট ফোসকার ওপর লাগান। যা অ্যান্টিসেপটিক হিসেবে কাজ করে।

৯. ভ্যাসলিন বা গ্লিসারিন

জুতো পরার আগে এই ভ্যাসলিন বা গ্লিসারিন লাগিয়ে নিন। ফোসকা পরার সম্ভাবনা অনেক কমে যায়।

১০. পাউডার

আপনার পা থেকে যদি খুব ঘাম হয় তবে পায়ে পাউডার লাগিয়ে নিন। ঘাম কম হবে এবং ফোসকা পরার সম্ভাবনা কমে যাবে।

পুজোয় ঘুরতে বেরোনোর আগে ব্যাগে ব্যান্ডেড, তেল যুক্ত ক্রিম, রাখুন। অথবা জুতো কেনার পর কয়েক দিন ঘরে পরে হেঁটে দেখুন। জানি পায়ে ফোসকা থাকলে কষ্ট হয়, কিন্তু তাতে পুজোর আনন্দ মাটি করা ঠিক হবে না। ফোসকার ব্যথা কমে যাবে কিছু পুজো আবার সেই ১ বছর পর। সতর্কতা তো জানা থাকলো।

খুব ভালোভাবে পুজো কাটান, খুশি থাকুন, সবার সাথে পোস্টটি শেয়ার করুন।

Click here for the best in baby advice
What do you think?
0%
Wow!
0%
Like
0%
Not bad
0%
What?
scroll up icon