Link copied!
Sign in / Sign up
16
Shares

এই আশ্চর্য উপাদান গুলি খেয়ে আপনিও পেতে পারেন মেদহীন পেট!

মহিলাদের নিজেদের শরীর নিয়ে দুশ্চিন্তায় ভোগার একটি অন্যতম কারণ হলো মোটা হয়ে যাওয়া। সমস্ত চমৎকার শরীরের অধিকারিণী চমৎকার মহিলাদের প্রতি উপযুক্ত সম্মান রেখেই বলা যে, ইন্টারনেটে আমরা যা দেখি সেটাই আমাদের নিজেদের যাচাই করার মাপকাঠি হয়ে দাঁড়ায়। আমরা মনের মধ্যে নিজেদের একটি প্রায় দ্বিগুণ সাইজের সংস্করণ বানিয়ে রেখেছি, এবং এর ফলে আমরা হীনমন্যতায় ভুগি। আমরা দেখি মহিলাদের নানা রকম জিনিস করে - যেমন জিমে যাওয়া, ব্যায়ম করা, ব্যায়াম শিক্ষক রাখা, ইত্যাদি - মেদ ঝরিয়ে সুন্দর গঠন লাভ করতে। স্বাভাবিক ভাবেই মা হিসেবে আপনার বেশির ভাগ সময়ই কেটে যায় বাড়ির নানা কাজে কর্মে বা শিশুকে সামলাতে, এবং নিজের জন্য সময় বের করা মুশকিল হয়ে পড়ে। এই ব্যস্ত রুটিন এর মধ্যে আপনি হয়ত চিপস বা মিষ্টি জাতীয় খাবার খেয়ে নিজের চাহিদাগুলো মিটিয়ে নিচ্ছেন। কিন্তু, একটা স্পষ্ট কথা হল - এগুলো আপনার স্বাস্থ্যের পক্ষে ক্ষতিকর। এই ধরনের অস্বাস্থ্যকর খাবার খেয়ে নিশ্চয় আপনি সারাদিন আলসেমি বা ঢিলে ভাব অনুভব করেছেন।

চিন্তা করবেন না, আমাদের কাছে আছে তিন টি আশ্চর্য সুরাহা, যেগুলো আপনি বাড়িতেই বানিয়ে ওজন কমিয়ে ফেলতে পারেন। এগুলি নিজের খাদ্যতালিকায় রাখুন এবং নিজেকে বদলে ফেলুন :

১) লেবু - মধুর গরম জল 

সমস্ত ব্যায়াম শিক্ষকেরা এই স্বাস্থ্যকর গুপ্তমন্ত্র টি ব্যাবহার করে থাকেন মেদ কমানোর সব চেয়ে সহজ উপায় হিসেবে। এই পানীয়টির সব চাইতে গুণগত লাভ এটির লেবু এবং লেবু বর্গ বা সাইট্রাস কোশেন্ট। লেবু যকৃৎ থেকে পাচক রস বা বাইল নিঃসৃত হতে সাহায্য করে যেটি তাড়াতাড়ি মেদ ভেঙে ফেলে। পাকস্থলীর মধ্যেই জটিল চর্বি এবং অন্যান্য যৌগিক ভেঙে ফেলতে এই জুড়ি মেলা ভার। লেবুতে পেপসিন নামক একটি উৎসেচক আছে, যার ফলে আপনার পেট বেশিক্ষণ ভরে থাকে এবং বার বার খাবার ইচ্ছে হওয়ার তো কোনো প্রশ্নই ওঠে না!

মধু খুবই দরকারি কারন এটি তৎক্ষণাৎ - শক্তি - প্রদায়ক খাবার। এর সঙ্গে জল মেশালে, আপনার পাকস্থলীর পরিবেশ ক্ষারীয় হয়ে গিয়ে ওজন দ্রুত কমে যায়।

গরম জলে শুধুমাত্র ১/২ লেবু আর ১ চা চামচ মধু মেশান, আর তৃপ্তি সহকারে পান করুন!

 

২) পাচনে সাহায্যকারী চা 

এই চা আপনি কোনো ভারী খাবার খেতে তারপর কিংবা সক্কালে উঠেই খেয়ে নিতে পারেন। এই চা তে লাগবে শুধুমাত্র ১ চা চামচ মৌরি, গোটা ধনে আর গোটা জিরে। ফুটন্ত জলে দিয়ে এগুলি ৫ থেকে ৬ মিনিট সেদ্ধ করুন। অল্প ঠান্ডা করে, ছেঁকে, হয়ে যাক তাজা, উষ্ণ এক কাপ! আয়ুর্বেদের মতে, এই চা আপনার মধ্যে একটি প্রশান্তি এবং স্বচ্ছন্দ, ফুরফুরে ভাব আনে, শুধুমাত্র মেদ ঝরানই নয়, এই চা সারাদিনের ক্লান্তিও দূর করে দেবে।

 

৩) মেদ কমানোর পানীয় 

প্রত্যেকটি স্বাস্থ্যসচেতন মানুষের পছন্দের পানীয় হলো এটি! এটি পেটের বিশ্রী ভুঁড়িকে অবলীলাক্রমে সরিয়ে ফেলতে কার্যকরী একটি উপাদান। আপনার লাগবে কেবলমাত্র - একটি শসা, পার্সলে পাতা, কুচানো আদা ১/২ এবং একটি লেবুর রস। মিশিয়ে ফেলে তৈরি করুন একটি অবিশ্বাস্য পানীয় যা প্রায় যাদুমন্ত্রের মত আপনার ওজন কমিয়ে ফেলবে!

এই উপাদানগুলি একসঙ্গে খাবার প্রয়োজনীয়তার কারণ হলো, শসাতে আছে প্রচুর পরিমাণ জল এবং মাত্র ৪৫ ক্যালোরি। সুতরাং, পেটের জন্য এটি এক কথায় অসাধারণ। পার্সলে তে আছে ভিটামিন এবং খনিজ বা মিনারেল এবং এতে ক্যালরিও খুব কম! এটি শরীরের জল প্রবাহ বাড়িয়ে স্ফীত ভাব কমিয়ে ফেলে, আদা আপনার রাসায়নিক বিপাক বাড়িয়ে দিয়ে মেদ ভেঙে ফেলে এবং এটি একটি খুব ভালো জীবাণু - নাশক।

রাত্রে শোয়ার আগে এই পানীয় নিশ্চয় খাবেন, কারণ এটি আপনার ঘুমের মধ্যেই বিপাককে বেশি সক্রিয় করে আপনার মেদ ঝরিয়ে ফেলে।

সুতরাং, মাথায় রাখুন, মন খালি পিৎজা বা ভাজাভুজি চাই চাই করলেও আপনার শরীরের কিন্তু প্রয়োজন শাক-সবজি !

Click here for the best in baby advice
What do you think?
0%
Wow!
0%
Like
0%
Not bad
0%
What?
scroll up icon