Link copied!
Sign in / Sign up
13
Shares

আপনি কোন সময়ে গর্ভবতী হবেন কি ভাবে বুঝবেন?


আপনি কি ডিম্বোস্ফোটন সম্পর্কে জানেন? এটি সম্পূর্ণ ভাবে মহিলাদের শরীরের অভ্যন্তরে ঘটে এমন একটি কার্য। এই সময়ে মহিলাদের ডিম্বাশয় থেকে ডিম্বাণু বেরিয়ে আসে, এবং মহিলাদের শরীরে থাকা ফেলপিয়ান টিউবে সেটি অবস্থান করে এবং পুরুষের শুক্রাণুর সাথে নিষিক্ত হওয়ার জন্য সে প্রস্তুত থাকে। এবং ধীরে ধীরে তা ক্রমশঃ গর্ভাশয়ের এর দিকে এগিয়ে যেতে থাকে। এবং এই যাত্রাপথে যদি কোন শুক্রানু দ্বারা ডিম্বানুটি নিষিক্ত হয় তবে তা গর্ভাশয়ের দিকে গিয়ে স্থগিত হবে। যাকে আমরা নারীর গর্ভধারন বলি।

আর যদি কোনো কারণে ডিম্বানুটি কোন শুক্রানু দ্বারা নিষিক্তহতে না পারে, তবে সেটি কিছু রক্তকনিকা সাথে মাসিক ঋতুচক্রের সময় বাইরে বেরিয়ে আসে। এই সময় মেয়েদের জরায়ুর দেয়ালও নিষিক্ত ডিম্বাণু থাকার কারণে তা পুরু হয়ে ওঠে। যদি আপনি গর্ভধারণ না করেন তবে শরীরের ভিত্তিতে থাকা সব কিছুই মাসিক ঋতুচক্রের সময় বেড়িয়ে আসে। ডিম্বোস্ফোটনের ৫ দিন আগে থেকে ডিম্বোস্ফোটনের দিন পর্যন্ত সময়কে সবথেকে সঠিক সময় ধরা হয়ে থাকে যদিও শেষের তিন দিন আপনার গর্ভবতী হওয়ার সম্ভাবনা সবচাইতে বেশী। তবে কিছু কিছু বিশেষ পদ্ধতিতে এই সময় সম্পর্কে ধারনা করতে পারেন। এই সময়ের মধ্যে মিলিত হলে গর্ভধারণের সম্ভাবনা সবথেকে বেশি থাকে।

ওভুলেশন বা ডিম্বোস্ফোটন কিভাবে বোঝা যায়?

কি ভাবে জানবেন আপনার ওভুলেশন বা ডিম্বোস্ফোটনের সময় কোনটি। এটি বোঝার জন্য বেশ কিছু পদ্ধতি অবলম্বন করা যায়। যেমন:

১। ক্যালেন্ডার মেথড

আপনার মাসিক যদি নিয়মিত হয়, অর্থাৎ নির্দিষ্ট সময়ের ব্যবধানে পর পর মাসিক হয় তবে এই পদ্ধতি অনুসরণ করা যেতে পারে। ডিম্বোস্ফোটনের সময় বোঝার জন্য আপনার পরবর্তী মাসিকের প্রথম তারিখ থেকে ১৪ দিন বিয়োগ করুন। উদাহরণসরূপ যদি আপনার মাসিক ২ তারিক শুরু হয় এবং পরবর্তী মাসিক শুরুর সম্ভাব্য তারিখ ২৯ হয় তবে আপনার ওভুলেশন শুর হবে ১৫ বা ১৬ তারিখ। ওভুলেশনের দিন এবং এর আগের ৫ দিন সময়কে সবথেকে উর্বর সময় ধরা হয়। সে অনুযায়ী আপনার সবচাইতে উর্বর সময় হবে ১০ থেকে ১৫ তারিখ পর্যন্ত। এই  পদ্ধতিটি ডিম্বোস্ফোটন সময় জানার সব থেকে সহজ পদ্ধতি। কিন্তু এটি সম্পূর্ণ ভাবে নির্ভুল নয়। কারণ ডিম্বোস্ফোটনের পরবর্তী সময় মাসিকের ঠিক ১৪-১৬ দিন আগেই হবে এমন কিন্তু নয়। যাদের প্রতি ২৭-২৯ দিন অন্তর মাসিক শুরু হয় তাদের জন্য ডিম্বোস্ফোটনের সময়কাল পরবর্তী মাসিক শুরু হওয়ার ৭ থেকে ২০ দিন আগেও হতে পারে। মাত্র ১০% ক্ষেত্রে মাসিক শুরুর ১৪-১৫ দিন আগে ডিম্বোস্ফোটন শুরু হয়।

২। ডিম্বোস্ফোটন কিট ব্যাবহার করে

বিশেষ ধরণের প্রেডিক্টর কিট ব্যাবহার করে আপনি আপনার ডিম্বোস্ফোটনের সময় জেনে নিতে পারেন। এর দ্বারা হরমোন লেভেল কোন মাত্রায় তা পরীক্ষা করে ডিম্বোস্ফোটনের সম্পর্কে জানা যায়। আপনি এটির দুই ধরনের কিট পাবেন। একটির মাধ্যমে ইউরিন পরীক্ষা করা হয় অন্যটির মাধ্যমে স্যালাইভা বা লালা পরীক্ষা করে ডিম্বোস্ফোটনের সময় নির্ণয় করা হয়। ইউরিনের পরীক্ষার মাধ্যমে LH-এর লেভেল কত তা পরীক্ষা করা হয়। যদি এর মাত্রা বেশী থাকে এর অর্থাৎ আপনার শরীরের যে কোন একটি ডিম্বাশয় সক্রিয় ডিম্বাণু নিঃসরণ করবে।

৩। ডিম্বোস্ফোটনের লক্ষন

আপনার যোনীপথে যে লালা নিঃসরণ হয়, তা মাসিক চক্রের সাথে সাথে বদলাতে থাকে। যখন আপনার ডিম্বোস্ফোটনের সময় এগিয়ে আসে, তখন এই লালা পাতলা এবং পিচ্ছিল হয়ে যায়, অনেকটা ডিমের সাদা অংশের মত। এ ছাড়াও ডিম্বোস্ফোটনের সময় আপনার শরীরের তাপমাত্রা ০.৪-০৬ ডিগ্রি ফারেন হাইট বেড়ে যায়। আপনি যদি ৪ থেকে ৫ মাস এই সমস্ত লক্ষণ ভালোভাবে লক্ষ্য করেন এবং অন্যান যে শারীরিক লক্ষণ দেখা যায়, যেমন তলপেটে ব্যথা স্তনে ব্যথা ইত্যাদি, তাহলে আপনি নিজেই নিশ্চিতভাবে বলতে পারবেন আপনার কখন ডিম্বোস্ফোটন হচ্ছে। তবে মনে রাখবেন যে আপনার শরীরের লক্ষণসমূহও ১০০% নির্ভরযোগ্য নয়।

ডিম্বোস্ফোটন সম্পর্কে কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য

ডিম্বাশয় থেকে ডিম্বাণু নিঃস্বরনের পর প্রতিটি ডিম্বানু ১২ থেকে ১৪ ঘন্টা জীবিত থাকে। প্রত্যেক সময়ে সাধরনত একটি মাত্র ডিম্বাণু থাকে। ডিম্বানুর নিঃস্বরন মানসিক চিন্তা, অসুস্থতা অথবা ঋতুচক্রের দৈর্ঘ্য পরিবর্তনের সাথে গভীর সম্পর্ক আছে। অনেক নারীর ডিম্বনিঃস্বরেনের সময় সামান্য রক্তপাত হতে পারে। নিঃস্বরনের পর শুক্রাণু নিষিক্ত ডিম্বানু ৬ থেকে ১১ দিনের মধ্যে গর্ভশয়ে স্থান নেয়। ঋতুচক্রের রক্তক্ষরন ডিম্বানু নিঃস্বরন না করেও হতে পারে। অনেকে মনে করেন করা হয় দুশ্চিন্তার কারণে মাসিকের সময়ে বদল হয়। আসলে সেটা ঠিক নয়। দুশ্চিন্তার কারণে ডিম্বোস্ফোটন বাধাগ্রস্থ হয় যার কারণে মাসিকের সময় পিছিয়ে যায়। ডিম্বোস্ফোটন হয়ে যাওয়ার পর কোনো চিন্তা কারণ না থাকলে তা মাসিকের দিনক্ষণের উপর কোন প্রভাব ফেলেনা।

Click here for the best in baby advice
What do you think?
0%
Wow!
0%
Like
0%
Not bad
0%
What?
scroll up icon