Link copied!
Sign in / Sign up
11
Shares

ধনেপাতা দিয়ে করুন ত্বক উজ্জ্বল


আমরা সকলেই ধনেপাতা চিনি , আমাদের মধ্যে অনেকে তাকে ধনিয়া বলেও ডাকে। এই ধনেপাতার বিশেষ গুন্ যা রন্ধনপ্রণালীতে অধিকাংশ সময় পাওয়া যায় হলো এর চেহারা এবং ঘ্রান যা যেকোনো পদকে করে তোলে আরো বেশি মুখরোচক। তেল এবং পারফিউম বানাতেও এর বেবহার হয়। কিন্তু জানেন কি? যে এই আশ্চর্য পাতা আপনার দৈনন্দিন ত্বক চর্চায় বেবর্হিত হতে পারে?

ধোনে পাতায় আছে ভিটামিন সি , এন্টিঅক্সিডেন্টস, বেটাক্যারোটেনে এবং ফোলেটস। এছাড়াও এতে আছে আইরন যা শরীরের হেমোগ্লোবিন মাত্রা বাড়িয়ে দিতে পারে , যা নিস্তেজ ত্বকের রূপে উন্নতি এনে দিতে পারে। এটি সব ধরণের স্কিনটাইপে গুনকারক তা সে তৈলাক্ত হোক বা রুক্ষ হোক। এমনকি এটি একনে , এক্সজিমা এবং ব্ল্যাকহেডস থেকেও মুক্তি দিতে পারে।

এখানে পড়ুন আপনি কি কি ভাবে এর বেবহার আপনার রোজকার রূপচর্চায় অন্তর্ভুক্ত করতে পারেন :-

১. একনে বা ব্রেক আউট প্রতিরোধ করতে

একটি প্যান এ ক্যামোমিল , লেমনগ্রাস ও ধনেপাতা একসঙ্গে ফুটিয়ে নিন। ঠান্ডা হলে এই মিশ্রণটি বেটে নিয়ে মুখে লাগিয়ে নিন। ঠিক ২০ মিনিট রাখার পর মুখ ভালো করে ঠান্ডা জল দিয়ে ধুয়ে নিন। এই পদ্ধতি নিয়মিত অনুসরণ করলে দেখবেন ব্রণ ও ব্ল্যাকহেড কমে গেছে।

২. মুখের ওপর বলি রেখা বা ফাইনলাইন্স এর আবির্ভাব বিলম্বিত করুন

ধনেপাতা বাটা , এলোভেরা গেল এর সঙ্গে সমান পরিমানে মিশিয়ে মুখে মাখুন। ১৫-২০ মিনিট পর তা ধুয়ে ফেলুন। এটি আপনার মুখে বলি রেখা ও ফাইন লাইনস এর আবির্ভাবকে বিলম্বিত করে।


৩. নরম ও মসৃন ত্বকের জন্য 

১/২ কাপ ওটমিল, ১/৪ কাপ শশা, ১/৪ কাপ দুধ এবং এক মুঠো তাজা ধনেপাতা একসঙ্গে ব্লেন্ড করে একটি মিহি লেই বানিয়ে নিন। তারপর এই লেই মুখে মেখে ২০ মিনিট রেখে দিন। তারপর জল দিয়ে ধুয়ে পান নরম ও মসৃন ত্বক।

৪. একনে বা একনের দাগের সুচিকিৎসা করুন

ধনেপাতার রস পাতি লেবুর রসের সাথে মিশিয়ে মুখে লাগিয়ে নিন। শুধুমাত্র একনের চিকিৎসাই নয় - এটি একনের ছেড়ে যাওয়া দাগ ও কমিয়ে দিতে পারে।


৫. পুরু ও গোলাপি ঠোঁটের জন্য 

ফেটে যাওয়া ঠোঁটে ওই একই ধনেপাতা ও পাতিলেবুর রস লাগাতে পারেন আপনি। রাত্রে এটি ঠোঁটে লাগিয়ে সকালে উঠে ঠোঁট ধুয়ে ফেলুন। কয়েক দিন এই পদ্ধতি অনুসরণ করলে আপনি নিজেই এর ফল দেখতে পাবেন।  

Click here for the best in baby advice
What do you think?
0%
Wow!
0%
Like
0%
Not bad
0%
What?
scroll up icon