Link copied!
Sign in / Sign up
7
Shares

দেড় বছরের মেয়েকে দিনে দিনে গর্ভবতীর মত দেখতে শুরু করছিল, কিন্তু ডাক্তার এমন কি জানতে পারলেন যার দ্বারা সকলে চমকে গেলেন?


এই জগতে এমন কিছু রোগ পাওয়া যা শুধু ঈশ্বরই জানেন এবং মানুষের হাতে নেই। আমরা একটি শারীরিক অসুস্থতার ব্যাপারে অর্থাৎ একটি  শিশু সম্পর্কে আপনাকে কিছু বলতে যাচ্ছি যা আপনি শুনলে অবাক হয়ে যাবেন। সংবাদটি হল পল রিবকিন এবং ক্যারেন রোডসের কন্যা মাদি-কে নিয়ে। ওনারা নিউ জার্সিতে বাস করতেন; মাদি জন্ম থেকেই খুব দুর্বল ছিল।

কিন্তু জন্মের ২০ সপ্তাহ পরে, মাদির পেট ফুলে যেতে শুরু করে। তার পেট এত বড় হয়ে উঠছিল যে সে একজন গর্ভবতী শিশুর মত দেখতে শুরু করেছিল। মেয়েটির এই অবস্থা দেখে তাঁর বাবা মা তাঁকে ডাক্তারের কাছে নিয়ে যান এবং তখন বেরিয়ে আসে বাস্তব।

প্রথমত, আসুন আমরা আপনাদের বলি যে মাদির মা মাদিকে জন্ম দেওয়ার আগে এক পুত্রের জন্ম দেন যে জন্মের পরের দিনই মারা যায়। আসলে, ওনার পলিিসিসটিক কিডনি রোগ ছিল। এই রোগে কিডনিতে পাথর হলে  যেমন হয় তেমনই কিছু সমস্যা ছিল. এই কারণে, কিডনির কাজ বন্ধ হয়ে যায় এবং মাদিও পরে একই রোগে আক্রান্ত হয়।

তদন্তে জানা যায় যে মাদি তার পিতামাতার কাছ থেকে এই রোগটি পেয়েছে কারণ এই রোগটি ঘটতেই মাদির কিডনি দেড় বছর বয়স থেকে কাজকর্ম করা বন্ধ করে দেয়।

পিতা কন্যার জীবন বাঁচান 

মাদির অবস্থা দেখে তার পিতা মাদিকে কিডনি দান করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন। ডাক্তাররা পরীক্ষা এবং ট্রান্সপ্ল্যান্ট করতে অনুমতি দেন। মাদির কিডনি ট্রান্সপ্ল্যান্টেশন সফলও হয়।

তবে, মাদির ২৫ বছরের মধ্যে আরেকটি ট্রান্সপ্ল্যান্ট করতে হবে। কিন্তু তার অবস্থার অনেক উন্নতি হয়েছে এবং পেট কম ফোলা বলে মনে হচ্ছে।

Click here for the best in baby advice
What do you think?
0%
Wow!
0%
Like
0%
Not bad
0%
What?
scroll up icon