Link copied!
Sign in / Sign up
6
Shares

প্রতি রবিবার এই কাজ গুলি নিয়ম করে করুন


আপনার কাছে রবিবার সবচেয়ে প্রিয়, ভালবাসার দিন। এইদিনটা শুয়ে বসে কাটিয়ে দিলে কিন্তু আগামী এক সপ্তাহ অনেক কিছু সমস্যা হতে পারে। তাই আজকের দিনটাকে কাজে লাগান। তবেই ভাল যাবে আগামী সপ্তাহ। জীবনযাপনের ধরন অনুযায়ী অবশ্যই কিছু পাল্টাতে হতে পারে কিন্তু এই তালিকা মিলিয়ে যদি চলতে পারেন তবে সারা সপ্তাহটি ভাল যাবে।

১. ফ্রিজে কাঁচা আনাজ এবং রান্না করা খাবার হয় ফেলে দিন নয়তো রিমিক্স রান্না করে খেয়ে শেষ করে দিন। ফ্রিজ পরিষ্কার করে ঝকঝকে করে ফেলুন কারণ গোটা সপ্তাহের লেফট ওভার খাবার ঢোকানোর জায়গা তো চাই।

২. পার্স, হ্যান্ডব্যাগ যা যা নিয়মিত ব্যবহার করেন সেগুলি থেকে পুরনো কাগজ ও হাজারো অকাজের জিনিস ঝেড়ে ফেলে দিন। লেদারের পার্স বা ব্যাগ অল্প ক্রিম আর পরিষ্কার কাপড়ের টুকরো দিয়ে পরিষ্কার করুন।

৩. একটা বড় পাত্রে অনেকটা করে ফ্রুট স্যালাড বানান। তরমুজ, পাকা পেঁপে, আনারস, স্ট্রবেরি, সাদা ও কালো দুই রকম আঙুর, বেদানা ইত্যাদি বেশি করে মিশিয়ে ছোট ছোট ৬টি এয়ার কন্টেনারে সেগুলি ভরে ফেলুন। প্রতিদিন সকালে অফিস বা কলেজ বেরনোর আগে একটি করে কৌটো জাস্ট ব্যাগে পুরে নিন। শরীর ভাল থাকবে।

 

৪. সারা সপ্তাহে কী কী কাজ রয়েছে তার একটি তালিকা করুন। কোনদিন, কোন সময় সেটি করতে হবে তাও লিখে রাখুন। সোম থেকে পরের রবিবার পর্যন্ত প্রত্যেক দিন সকালে উঠে একবার করে চোখ বুলিয়ে নিলেই আর কোনও কাজ ভুল করে বাকি থেকে যাবে না। সপ্তাহের মধ্যেও প্রয়োজন পড়লে লিস্ট নতুন করে সাজিয়ে নিন।

৫. সারা সপ্তাহে ব্রেকফাস্ট থেকে ডিনার কী কী খাবেন তার একটি তালিকা করুন। রবিবার অবশ্যই সেই অনুযায়ী শপিং করে প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র স্টোর করে রাখবেন।

৬. সারা সপ্তাহ কী কী জামা কাপড় পরবেন তা গুছিয়ে আয়রন করে রাখুন ওয়ার্ডরোবের একদিকে আর সময় পেলে ওয়ার্ডরোবটিও একটু গুছিয়ে নিন।

৭. জুতোর র‌্যাক থেকে সব জুতো পেড়ে নিয়ে ধুলো ঝাড়ুন। যেটা ওয়াশ করা যায় সেই জুতো ধুয়ে রোদে শুকিয়ে নিন।

৮. যাবতীয় কাজ সন্ধে ৬টার মধ্যে সেরে ফেলুন। সন্ধেবেলা অবশ্যই বন্ধুদের সঙ্গে অথবা পার্টনারের সঙ্গে কোথাও একটু ঘুরে আসুন। নেহাত বাজার করতেই বেরন না হয়। মন ভাল হবে।

৯. যেখানেই বেড়াতে যান না কেন রাত ৯ টার মধ্যে বাড়ি ফিরে আসুন। রবিবার রাতের খাবারটা খুব জমকালো না হলেও যেন মনের মতো হয়। তবেই তৃপ্তি হবে রবিবারের ছুটিটা কাটিয়ে।

১০. যতটা সম্ভব বাড়ির সকলের সঙ্গে গল্প করুন, বিশেষ করে বাড়ির বয়স্ক সদস্যদের সঙ্গে। ওঁরাই আমাদের নিঃশর্ত ভাবে ভালবাসেন। বাইরের লোককে না বলে দুঃখ কষ্ট ওঁদের সঙ্গে শেয়ার করুন। মনটা হালকা হবে। আবার এক সপ্তাহ জীবনযুদ্ধের জন্য প্রস্তুত হতে পারবেন।

১১. সারা সপ্তাহে কত খরচ হতে পারে তার হিসেব করুন। এর পর ছোট ছোট খামে করে সোম থেকে শুক্র প্রত্যেকদিনের খরচের টাকা সরিয়ে রাখুন। এভাবে চললে বাজে খরচ কিছুটা কমবে, সাশ্রয়ও হবে।

১২. রাত দশটা থেকে ১১ টার মধ্যে অবশ্যই শুয়ে পড়বেন। এই একটা রাত যত ভাল ঘুমোন যাবে ততই সোমবার সকালটা কম তেতো লাগবে। 

Click here for the best in baby advice
What do you think?
0%
Wow!
0%
Like
0%
Not bad
0%
What?
scroll up icon