Link copied!
Sign in / Sign up
14
Shares

চুলে তেল মাখার আগে মেয়েদের এই ১০টি জিনিস অনুসরণ ও অভ্যেস করা উচিত

আপনার চুল শক্তিশালী করার জন্যে সবচেয়ে কার্যকর এবং গুরুত্বপূর্ণ উপায় হল তেল মাখা। যদি আপনার মাথার খুলির ত্বক অনেক শক্ত বা শুষ্ক হয় এবং আপনার চুল ভঙ্গুর হয়, সেক্ষেত্রে চমৎকার চুলে ভালো করে তেল মালিশ বা চাম্পি করা যা ফল দেয়, তা আর কিছু করতে পারে না। একটি ভাল চাম্পি করার কিছু নিয়ম জানা দরকার। পড়ুন এবং সুন্দর চুলকে স্বাগত জানান!
১. তেলের সংখ্যা নির্ধারণ করুন

কে বলেছে আপনি এক সময়ে আপনার চুলে কেবল এক ধরনের তেল প্রয়োগ করতে পারেন? আসলে দুটি ধরণের তেল আছে; ক্যারিয়ারের তেল (নারকেল তেল এবং জলপাই তেল) এবং অপরিহার্য তেল (জেসমিন এবং ল্যাভের্ডারের তেল)। কিছু মানুষ ঘনীভূত অপরিহার্য তেল দিয়ে মিশ্রিত একটি তেল ব্যবহার করতে পছন্দ করেন এবং তারপর ভাল ফলের জন্য তাদের শিকড় এবং মাথার উপর এটি প্রয়োগ করেন। এটি চেষ্টা করতে পারেন বিশেষ করে যদি আপনার শুষ্ক, ক্ষতিগ্রস্ত চুল থাকে।

২. সঠিকভাবে চুলের তেল পছন্দ করুন

সঠিক ধরনের ক্যারিয়ার এবং অপরিহার্য তেল নির্বাচন করা অত্যন্ত প্রয়োজনীয়। সবার চুলের ধরণ ভিন্ন এবং কি ধরনের তেল কতটা মাপসই ব্যবহার করবেন সেটা জানা খুব দরকার। শুধু সঠিক ধরনের তেলই আপনার চুলের গুণমান উন্নত করতে সাহায্য করবে এবং এটি স্বাস্থ্যকর এবং চমত্কারও তৈরি করবে।

৩. আপনার চুলকে প্রস্তুত করুন

চুলে চাম্পি শুরু করার আগে, এটা আপনার জন্য সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ আয়োজন। আপনি আপনার চুল চিরুনি দিয়ে আঁচড়াতে পারেন যাতে জট এবং নোংরা এড়ানো যায়। এটা বলা হয় যে আপনার চুলে চাম্পি সেরা কাজ করে যদি সেটি আগে থেকেই হালকা তৈলাক্ত থাকে; ধরুন শ্যাম্পু করার ১-২ দিন পরে। আপনি এটি চেষ্টা করে দেখতে পারেন।

৪. তেল সামান্য গরম করে নিন

তেল দেওয়ার আগে সামান্য গরম করে নিন, এবং আপনার আঙ্গুলের ডগায় যথেষ্ট উষ্ণ হওয়ার পর সেটি লাগান। একটি গরম নারকেল বা জলপাই তেল ব্যবহার করে আপনার মাথার নরম রাখা যাবে। আপনার চুল এবং মাথার খুলির ত্বক তেলের তাপ সঠিকভাবে শোষণ করে এবং আপনার ত্বকের বিকাশে সাহায্য করার দ্বারা আরো কার্যকরভাবে কাজ করতে পারে।

৫. চুলটি দুটি ভাগ করুন

একটি মসৃণ চাম্পির জন্যে আপনার চুলকে দুটি অংশে বিভক্ত করুন। আপনার চুলের মাঝখানের সিঁথি করে চিরুনি দিয়ে আপনার কাঁধের উপর টানুন। এই পদ্ধতি আপনার চুলে তেল প্রয়োগ করা সহজ করতে সাহায্য করবে।

৬.চুলের গোড়া এবং ত্বকে পরিচর্চা করুন

আপনার মাথার খুলিটি সঠিকভাবে ম্যাসেজ করার জন্য এটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। সাধারণত, আপনি যখন চুল তেল প্রয়োগ করেন, তখন আপনি আপনার কানের পিছনে এবং আপনার মাথার পেছনের অংশগুলি সম্পর্কে ভুলে যান। সেরা ফলাফল অর্জন করার জন্য যথোপযুক্তভাবে এই এলাকায় ম্যাসেজ নিশ্চিত করুন।

৭. আঙুলের ডগা দিয়ে মালিশ করুন

মাথায় সরাসরি তেল ঢালার ভুল করবেন না। এই ভাবে, আপনি আপনার মাথা জুড়ে সমানভাবে এবং সঠিকভাবে তেল বিতরণ করতে পারবেন না। এছাড়াও, আপনার হাতের তালুও ব্যবহার করবেন না, কারণ তাতে চুলের ভাঙ্গন বাড়ে। তাই, অন্তত ১০ মিনিটের জন্য আপনার আঙ্গুলের ব্যবহার করুন এবং এবং একটি সার্কুলার গতিতে আপনার স্ক্যাল্প ম্যাসেজ করুন। ভুলেও কখনো নখের প্রয়োগ করবেন না, তাতে খুলির ত্বকে ক্ষতি হয়।

৮. আপনার চুল ধরে দৈর্ঘ্য সমেত নিচের দিকে টানুন

আপনার মাথার খুলি এবং শিকড় ছাড়াও আপনার চুলের পুরো দৈর্ঘ্য ধরে নিচ অবধি তেল প্রয়োগ করা প্রয়োজন। কিন্তু লম্বা চুল রাখলে অনেক তেল ব্যবহার করার ভুল করবেন না, যেহেতু এটি একটি তৈলাক্ত ময়লা তৈরি করতে পারে। এটি ধোয়া সহজ হবে না এবং অত্যধিক শ্যাম্পু ব্যবহার শুষ্কতার কারণ হতে পারে। ফলে আপনার চাম্পি করার যে উদ্দেশ্য তা আর সফল হবেনা। চুললুগুলির মধ্যে এটি ঘষে এবং আলতো করে তেলটি নিচ অবধি প্রয়োগ করুন।

৯. রাতে চুলে তেল মেখে ঘুমান

শ্যাম্পু করার আগের রাতে চুলে তেল প্রয়োগ করা বেশি ফলপ্রবণ। আপনি এমনকি এটি দীর্ঘ সময়ের জন্য ছেড়ে দিতে পারেন, তবে তেলটি ময়লা আকৃষ্ট করতে পারে এবং আপনার চুল এমনকি দুর্বলও করতে পারে। তাই রাতে মেখে পরের দিন শ্যাম্পু করা সবচেয়ে ভাল।

১০. নিয়মিত তেল মাখুন

যদি আপনি ফলাফল দেখতে চান, সপ্তাহে অন্তত একবার আপনার চুলে তেল মাখুন। চাইলে আপনি তার বেশিও দিতে পারেন। দীর্ঘ সময়ের ব্যবধান আপনাকে সেভাবে কোনো ফল দেবেনা, তাই একটি নিয়ম বজায় রাখুন।

তাহলে দেরি কেন? এই পোস্টটি শেয়ার করে সকলের সাথে ভোগ করুন সুন্দর সুসজ্জিত কেশ।

নতুন মায়ের চুল এবং ত্বকের যত্ন নেয়ার ১২ টি উপায়
আপনার শিশুর চুল দ্রুত বৃদ্ধি করার ৫টি উপায়
নবজাত শিশুর মাথায় ঘন চুল সম্পর্কে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য
নারকেল তেল শিশুর সবচেয়ে ভাল বন্ধু
৬ টি ম্যাসাজের তেল এবং তাদের উপকারিতা
Click here for the best in baby advice
What do you think?
0%
Wow!
0%
Like
0%
Not bad
0%
What?
scroll up icon