Link copied!
Sign in / Sign up
2
Shares

পৌষ-পার্বণে পিঠের সাথে বানান বিভিন্ন ধরণের অন্য রকমের হালুয়া

১. মাসকাট হালুয়া

উপকরণ:

কর্নফ্লাওয়ার ১ কাপ, চিনি ২ কাপ বা স্বাদমতো, ময়দা আধা কাপ, চায়না গ্রাস ১৫ থেকে ১৭ গ্রাম (১ কাপ জলেতে ভিজিয়ে রাখুন ৩০ মিনিট), জল দেড় কাপ (শিরার জন্য), ঘি ও তেল ১ কাপ, লেবুর রস ১ চা-চামচ, কমলার রস ১ টেবিল চামচ, ফুড কালার কমলা ও সবুজ (ইচ্ছেমতো অন্য রংও দিতে পারেন) ১ ফোঁটা করে, পেস্তাবাদাম কুচি ২ টেবিল চামচ, শুকনা নারকেলের কুচি সাজানোর জন্য।

প্রণালি: কর্নফ্লাওয়ার ও ময়দা ৫ কাপ জলেতে সারা রাত ভিজিয়ে রাখুন। পরদিন জল ওপর থেকে ফেলে দিয়ে মিশ্রণটি দুই ভাগ করে তাতে আলাদা দুই রং মিশিয়ে রাখুন। একটি পাত্রে চিনি ও জল জ্বাল দিন। চিনি ভালোমতো গলে গেলে তা থেকে অর্ধেক পরিমাণ অন্য একটি পাত্রে সরিয়ে রাখুন। এখন শিরার একটিতে কমলার রস ও অন্যটিতে লেবুর রস দিয়ে রাখুন। এবার ভেজানো চায়না গ্রাস ওভেনে দিয়ে গলিয়ে নিন। এ সময় লেবুর শিরার পাত্র ওভেনে দিয়ে এর মধ্যে ওপর থেকে চিকন ধারায় সবুজ মিশ্রণটি ঢালুন। নাড়তে থাকুন ও অর্ধেক চায়না গ্রাস মিশিয়ে একটি পাত্রে জমতে দিন। একই নিয়মে কমলা হালুয়াটিও তৈরি করুন। দুই রকম হালুয়ার ওপরে নারকেল ছড়িয়ে দিয়ে জমে গেলে পছন্দমতো আকারে কেটে পরিবেশন করুন।

২. মাহলাবিয়া হালুয়া

উপকরণ: তরল দুধ ২ কাপ, কর্নফ্লাওয়ার ২ টেবিল চামচ, চিনি স্বাদমতো, গোলাপজল ২ ফোঁটা, মধু ২ চা-চামচ, কাজুবাদাম কুচি পরিবেশনের জন্য।

প্রণালি: সব উপকরণ স্বাভাবিক তাপমাত্রায় একসঙ্গে ভালোমতো মিশিয়ে নিন। এবার অল্প আঁচে ওভেনে দিন। পরিবেশনের পাত্র তৈরি রাখুন। মিশ্রণটি ঘন হতে শুরু করলেই সঙ্গে সঙ্গে নামিয়ে পাত্রে ঢালুন ও ফ্রিজে জমতে দিন। ঠান্ডা হলে নামিয়ে বাদাম কুচি ও মধু দিয়ে পরিবেশন করুন।

৩. টার্টশেল গাজর হালুয়া

উপকরণ: টার্ট শেলের জন্য: মাখন ১০০ গ্রাম (ঠান্ডা), চিনি ২ টেবিল চামচ, ময়দা ১ কাপ, লবণ ১ চিমটি, ঠান্ডা জল পরিমাণমতো।

হালুয়ার জন্য: গাজর মিহি কুচি ২ কাপ, ছানা ১ কাপ, কনডেন্সড মিল্ক সিকি কাপ, চিনি (প্রয়োজন হলে), ঘি সিকি কাপ, এলাচি দানার গুঁড়ো আধা চা-চামচ, বেদানা সাজানোর জন্য।

প্রণালি: ময়দা ও লবণ মিশিয়ে চেলে নিন। এরপর ঠান্ডা মাখন ছুরি দিয়ে ছোট ছোট টুকরা করে তা ময়দার সঙ্গে মিশিয়ে নিন। এতে অল্প অল্প করে জল দিয়ে ডো তৈরি করে নিন। ডো প্লাস্টিক র্যাপারে মুড়িয়ে ফ্রিজে রাখুন ৩০ মিনিট। এরপর বের করে নরম হলে তা দিয়ে একটি আধা ইঞ্চি মোটা রুটি বেলে নিন। এটি টার্ট প্যানের মাপ অনুযায়ী কেটে প্যানে বিছিয়ে দিন। ওভেনে ১৭০ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপে বেক করুন ২০ মিনিট অথবা বাদামি হওয়া পর্যন্ত। গাজর ফুটন্ত জলেতে ওভেনে এক বলক দিয়ে নামিয়ে জল ঝরিয়ে নিন। ওভেনে একটি পাত্রে ঘি দিয়ে গাজর দিয়ে ভুনে নিন ১০ মিনিট। গাজর নরম হয়ে এলে ছানা দিয়ে আরও ১০ মিনিট ভুনা করুন। এবার কনডেন্সড মিল্ক ও এলাচি দানার গুঁড়ো আরও কিছুক্ষণ ভালোমতো ভুনে নিন। হালুয়া ঘন হলে নামিয়ে নিন। টার্ট শেলগুলোতে হালুয়া ভরে বেদানা দিয়ে সাজিয়ে পরিবেশন করুন।

৪. পেশোয়ারি হালুয়া

উপকরণ: চিনি ১ কাপ, ছানা ১ কাপ, নারকেলবাটা ১ কাপ, মাওয়া আধা কাপ, গুঁড়ো দুধ আধা কাপ, এলাচি গুঁড়ো আধা চা-চামচ, জল আধা কাপ, ঘি আধা কাপ, পেস্তাবাদাম কুচি সিকি কাপ।

প্রণালি: জল, দুধ, ছানা ও বাদাম একসঙ্গে ব্লেন্ড করে নিন। এ মিশ্রণটি সিকি কাপ ঘি দিয়ে ওভেনে ভুনে নিন। এবার আলাদা পাত্রে নারকেল, এলাচি ও বাকি ঘি দিয়ে ভুনা করুন। এবার দুটি মিশ্রণ একসঙ্গে করে আরও বেশ কিছুক্ষণ ভাজতে হবে। অন্য একটি পাত্রে সিকি কাপ জল ও চিনি দিয়ে শিরা তৈরি করে তা ছানার মিশ্রণে ঢেলে দিন। এরপর হালুয়া ঘন হওয়া পর্যন্ত আরও ভাজতে হবে। প্রয়োজন হলে শেষে আরও ১ টেবিল চামচ ঘি দিয়ে নামিয়ে নিন। এবার বল বা ইচ্ছেমতো আকার করে পরিবেশন করুন।

৫. বম্বে আইস হালুয়া

উপকরণ: তরল দুধ ২ কাপ, সুজি সিকি কাপ, ঘি সিকি কাপ, চিনি আধা কাপ, এলাচি গুঁড়ো আধা চা-চামচ, দারুচিনি গুঁড়া ১ চা-চামচ, পেস্তা ও কাঠবাদাম কুচি সিকি কাপ, সিএমসি ১ টেবিল চামচ, হলুদ ফুড কালার ১ ফোঁটা।

প্রণালি: দুধ ও সুজি মিশিয়ে ওভেনে দিন। এতে চিনি ও এলাচি গুঁড়ো দিয়ে নাড়তে থাকুন। মিশ্রণটি ঘন হলে ঘি দিয়ে ভাজতে থাকুন এবং আরও ঘন হয়ে এলে সিএমসি দিন। সিএমসি ভালোমতো মিশে হালুয়া মাখা মাখা মতো ঘন হলে নামিয়ে নিন। দুই ভাগ করে এক অংশে হলুদ ফুড কালার মিশিয়ে নিন। এবার একটি বড় লম্বা ফয়েল পেপারে এক ভাগ মাখা নিয়ে ওপরে প্লাস্টিক র্যাপার দিয়ে পাতলা চারকোনা রুটি বেলে নিন। কিছুটা বেলার পর ওপরে বাদাম কুচি ও দারুচিনি গুঁড়ো ছিটিয়ে আবারও একটু বেলে নিন। এখন এটি ২৪ ঘণ্টা রেখে দিন। একইভাবে অন্য ডো-এর হালুয়া বানিয়ে রাখুন। হালুয়া শুকিয়ে গেলে চারকোনা করে কেটে কেটে সমমাপের পার্চমেন্ট পেপারে সাজিয়ে ফ্রিজে রেখে ঠান্ডা করে পরিবেশন করুন।

৬. পাউরুটির হালুয়া

উপকরণ: পাউরুটি ৮ থেকে ৯ টুকরা, তরল দুধ ২ কাপ, চিনি ৩ টেবিল চামচ বা স্বাদমতো, ঘি ৩ টেবিল চামচ এবং ভাজার জন্য পরিমাণ মতো, ডিম ১টি, এলাচি ২টি, দারুচিনি ১টি, কাঠবাদাম কুচি ১ টেবিল চামচ, ফিলো শিট, ৩ থেকে ৪টি, চেরি সাজানোর জন্য।

প্রণালি: দুধে চিনি ও ডিম ফেটে নিয়ে জ্বাল দিয়ে রাখুন। পাউরুটির চারপাশের কালো অংশ ধারালো ছুরি দিয়ে কেটে দুই ভাগ করে নিন। ফ্রাইপ্যানে হালকা ঘি দিয়ে রুটিগুলো বাদামি করে ভেজে তুলুন। দুধে পাউরুটিগুলো ভিজিয়ে রাখুন। এবার আরেকটি পাত্রে ঘি, বাদাম, এলাচি ও দারুচিনি দিয়ে ওভেনে দিন। একটু ভেজে রুটি ও দুধের মিশ্রণটি ঢেলে দিন। হুইস্ক দিয়ে নেড়ে নেড়ে পাউরুটির টুকরাগুলো ভেঙে দিন। এখন অনবরত নেড়ে হালুয়া আঠালো হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করুন। প্রয়োজনে আরও একটু ঘি দিতে পারেন। হালুয়া হয়ে গেলে নামিয়ে নিন। এবার ফিলো শিট চারকোনা করে কেটে কাপ কেক বানানোর মোল্ডে কাপের মতো বসিয়ে ৫ থেকে ৭ মিনিট অথবা বাদামি হওয়া পর্যন্ত বেক করুন, ১৭০ ডিগ্রি সেলসিয়াস। চামচ বা পাইপিং ব্যাগের সাহায্যে হালুয়া ফিলো কাপগুলোতে ভরে চেরি দিয়ে সাজিয়ে পরিবেশন করুন।

বিভিন্ন ধরণের পিঠের রেসিপি জানতে এখানে দেখুন।

১. শীতে বাড়িতে বানান ঝাল ঝাল পিঠা

২. বৈচিত্রে ভরা বাঙালির প্রিয় খাবার পিঠা

৩. পৌষ-পার্বনে বাড়িতে বানান বিভিন্ন স্বাদের পিঠা

৪. পাটিসাপটা ছাড়া বাঙালিদের পৌষ-পার্বন কিসের!!

Click here for the best in baby advice
What do you think?
0%
Wow!
0%
Like
0%
Not bad
0%
What?
scroll up icon