Link copied!
Sign in / Sign up
10
Shares

আলমন্ড বাদাম; ভেজানো বা কাঁচা খাবার উপকারিতা জানেন?

বাদাম জাতীয় শুকনো ফল সব সময়েই অত্যন্ত উপকারী। এটা সরাসরি খান বা বহিরাগত ভাবে ব্যবহার যাই করুন না কেন, আপনি কখনও হতাশ হবেন না। আলমন্ড তাদের মধ্যে আরো বেশি গুরুত্বপূর্ণ বলে চিহ্নিত হয়েছে। তারা আমাদের হৃদয়কে সুস্থ রাখে, কলেস্টেরল কমাতে সাহায্য করে, অ্যান্টিঅক্সিডেন্টসের একটি ভাল উৎস হিসাবে কাজ করে এবং বার্ধক্য এবং প্রদাহকে দমন করে।

এটি বিশ্বাস করুন বা না, যেসব নারীরা গর্ভাবস্থায় বাদাম খান তাদের শিশুরা বাদাম সংক্রান্ত এলার্জি থেকে ভোগার কম সম্ভাবনা রাখে। কয়েকটি সম্প্রদায়ের বিশ্বাস আছে যেখানে নারীদের কিছু ভিত্তিহীন কারণে বাদাম খাওয়া এড়িয়ে যেতে পরামর্শ দেওয়া হয়, কিন্তু এখন এটি বৈজ্ঞানিক ভাবে প্রমাণিত হয়েছে যে বাদাম প্রকৃতপক্ষেই পুষ্টির সম্ভার, মা ও শিশুর উভয়ের জন্য স্বাস্থকর।

বিবেচিত সব জিনিস থেকে, বাদাম থেকে যেসব নারীদের এলার্জি আছে তারা যেন গর্ভাবস্থায় সেটি না খান। আপনি তার পরিবর্তে বিকল্প খাদ্য আইটেমের সন্ধান করতে পারেন যা আপনি শুকনো ফল বা বাদাম থেকে প্রাপ্ত পুষ্টিগুলির জন্য ক্ষতিপূরণ পাবেন।

কাঁচা আলমন্ড 

কাঁচা আলমন্ড খাওয়া উপকারী কারণ তাতে বিভিন্ন ধরনের পুষ্টি রয়েছে। এতে রয়েছে আয়রন, ক্যালসিয়াম, ফোলিক অ্যাসিড এবং ফাইবার। আলমাণ্ডে কম পরিমাণে পরিমিত চর্বি বা ট্রান্স ফ্যাট রয়েছে যা  হৃদরোগের ঝুঁকি কমিয়ে দেয় এবং বেশিরভাগ দেশে চিকিত্সাগত খাবারের অংশ হিসাবে একটি স্ন্যাক্স হিসাবে ব্যবহার করা হয়। আলমন্ড এবং একটি সুস্থ হৃদয় একে অপরের সাথে এতটাই যুক্ত থাকে যে আমেরিকান হার্ট অ্যাসোসিয়েশন বাদামকে  "হার্ট-চেক" পদবী দিয়েছ।

ভেজানো আলমন্ড 

এটি অনেকের জন্যেই অপরিচিত সত্য হতে পারে, কিন্তু ভেজা বাদাম আসলে, কাঁচা বাদামের থেকেও ভাল কারণ বাদামের খোসায় ট্যানিন থাকে, যা পুষ্টির শোষণকে বাধা দেয়। একবার খোসা জলে ভেজার ফলে ছেড়ে গেলে বাদাম তাদের পুষ্টি পুরোপুরি ঢেলে দেয়। ঠাণ্ডা বাদামে লিপেজ নামে একটি এনজাইম থাকে যা  হজমে সাহায্য করে ও চর্বি কমানোর জন্য উপকারী।

ভেজা বাদামে রয়েছে ভিটামিন বি ১৭ এবং ফোলিক এসিড, যা ক্যান্সারের লড়াইয়ের জন্য এবং জন্মগত ত্রুটি হ্রাসের জন্য অত্যাবশ্যক। 

আলমন্ডের অন্যান্য উপকার 

যদি আপনি রোজ আলমন্ড খাওয়ার পরিকল্পনা করে থাকেন, তবে এখানে মাত্র কয়েকটি উপকারিতা রয়েছে যা কেবল আপনার জন্য নয়, আপনার সন্তানের জন্যেও কার্যকরী।

১. শক্তিশালী হাড়

গর্ভবতী নারীদের হাড় সময়ে সময়ে ভঙ্গুর হতে থাকে। বাদাম, সঠিক অনুপাতে খেলে হাড় ভারসাম্য বজায় থাকে ও শক্তিশালী থাকে; বয়স বাড়লেও সহজে ভঙ্গুর হয় না। বাদামের সাথে হাফ কাপ দুধ শরীরে ক্যালসিয়াম ও ম্যাগনেসিয়াম এবং ফসফরাসের উত্স দেয়। আপনি আপনার ব্রেকফাস্টে ওটমিল বা দিতে বাদাম যোগ করতে পারেন।

২. ওজন নিয়ন্ত্রণ

যদিও গর্ভাবস্থায় ওজন বেড়ে যাওয়া স্বাভাবিক, কিছু গর্ভাবস্থায় গর্ভকালীন বা অনিয়মিত আহার ও ব্যায়ামের অভাবের ফলে কিছুটা ওজন বৃদ্ধি পায়। এই অতিরিক্ত ওজন গর্ভাবস্থার পর ঝরানো বেশ কঠিন। অ্যালামন্ড আপনাকে ওজন নিয়ন্ত্রনে সহায়তা করে, কারণ এটি অ্যান্টিঅক্সিডেন্টসমূহের একটি ভাল উত্স।

৩. উন্নত মেটাবলিজম

অতিরিক্ত ওজন বা ওষুধের ফলে মহিলাদের জন্ম নেওয়া শিশুদের বিপাকীয় সমস্যাগুলি বিকাশের সম্ভাবনা রয়েছে। অ্যালামন্ড মায়ের পাশাপাশি শিশুটিকে কার্বোহাইড্রেট এবং প্রয়োজনীয় ফ্যাটের উৎস প্রদান করে যা খাদ্য বিপাকে সহায়তা করে; প্রদাহ, রক্তে শর্করা এবং স্ট্রেস কমায়।

Click here for the best in baby advice
What do you think?
0%
Wow!
0%
Like
0%
Not bad
0%
What?
scroll up icon