Link copied!
Sign in / Sign up
40
Shares

কেন আপনি পেটের মেদ কমাতে পারছেন না জানেন?


১. প্রসবোত্তর বিষণ্নতা

বিজ্ঞানীরা দেখেছেন যে বিষণ্নতা থাকলেই পেটের চর্বি বারে।খাবার ইচ্ছে না থাকার ফলেই হোক বা মনের দুঃখেই হোক, মেধ জমা স্বাভাবিক। েকে বলে প্রসবোত্তর বিষন্নতা। প্রসবের পর বিষণ্নতা হলে সেটা ব্যায়াম করে কমানো যায়। ব্যায়াম করলে মস্তিষ্কে কিছু হরমোন বের হয় যা মন ভালো করার কাজ করে, এবং তার ফলে আপনার ওজনও কমবে!

২. খাবার

আপনি হয়তো ভুল ধরণের খাবার খাচ্ছেন! সম্পৃক্ত চর্বিতে ওজন বারে ও অসম্পৃক্ত চর্বিতে ওজন কমে। তবে তাও কম খাওয়া ভালো কেননা ফ্যাট খেলেই ওজন বাড়বে। আপনার শরীরে মাগ্নিসিয়াম কম থাকতে পারে যা ব্লাড সুগার ঠিক রাখে না। তাই মাগ্নিসিয়াম পরিপূর্ণ খাবার খাওয়ার চেষ্টা করুন। তাতে সুগার ভারসাম্যে থাকবে ও ওজন সঠিক।

৩. ব্যায়াম

পেটের চর্বি কমাতে হলে হৃদয়ের সাথে সাথে পেশী মজবুত করা দরকার। পেশী বাড়লে ওজন কমাতে সুবিধে হয়। ফলে নির্দিষ্ট ব্যায়াম যা আপনার জন্যে ঠিক এবং অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ অনুমোদিত, তা রোজ বজায় রাখুন। অনিয়মিত ব্যায়াম আপনার শরীরে কোনো কাজে আসেনা।

৪. বয়স

যত বয়স বাড়বে শরীরের তত ক্যালরি পড়ানোর ক্ষমতা কমে। কম বয়সে যত তারাতারি ওজন কমে, তা ৩০ বছর বয়সে হবে না।

৫. প্রসেস্দ বা প্যাকেট করা খাবার

এই খাবারগুলি খেলে শরীরের ওজন কমানোর ক্ষমতা কমে যায় । বিশেষ করে প্রসবের পর এসব খাদ্য খাওয়ার ইচ্ছে ও প্রবণতা বেড়ে যায়। এতে সম্পৃক্ত চর্বি বেশি থাকে এবং তাতে ওজন বাড়ে। এর থেকে ভালো তাজা ফল খাওয়ার চেষ্টা করুন যাতে আন্টি অক্সিডেন্ট বৈশিষ্ট্য আছে।

৬. ঘুম

প্রসবের পর যতটা দরকার ঘুম না হলে ওজন বাড়ে। ঘুম কম হলে শরীরে একটা হরমোন তৈরী হয় যাতে খুব বেশি খিদে পায় এবং বেশি খাওয়া হয়ে যায়। বেশি খাওয়া মানেই ওজন বৃদ্ধির রাস্তা খুলে দেওয়া।

৭.চিন্তা বা মানসিক চাপ

বাড়ি ও শিশু দুটোর দেখা শোনা করতে গিয়ে আপনি হয়রান হয়ে যাবেন। বেশি চিন্তা করলে কর্টিসোলে হরমোন তৈরী হয় যার জন্য ওজন কমানো অসম্ভব হয়ে ওঠে। এবং এই চিন্তা কমাতে গিয়ে আপনি আরো উল্টোপাল্টা খাবার খেতে প্রবৃত্ত হন যার পরিবর্তে আপনার হজম ভাল করে নাও হতে পারে। এসব খাদ্যের প্রতিক্রিয়া আপনার ওজন বৃদ্ধিতে পরিণত হয়। এরকম অবস্থায় প্রয়োজন পড়লে মানসিক স্বাস্থ চিকিত্সাবিদদের সাহায্য নিন।

পেটের চর্বি ভালো, কারণ সেটি ভেতরের সব অঙ্গকে রক্ষা করে। তবে বেশি মেধ বাড়লে তা আপনার শরীর ও মনের ক্ষতি করতে পারে। তাই সঠিক উপায় অবম্বন করুন।

ওজন কমাতে গেলে কি কি করা উচিত ও কি কি করা উচিত না তা বিশদ ভাবে জানতে এখানে ক্লিক করুন

Click here for the best in baby advice
What do you think?
0%
Wow!
0%
Like
0%
Not bad
0%
What?
scroll up icon