Link copied!
Sign in / Sign up
0
Shares

৬টি বিভিন্ন উপায়ে আপনার গর্ভকালীন সময়ে শাশুড়ি আপনাকে সাহায্য করতে পারেন

বিয়ের পর জীবনে অন্ততঃ একটি সম্পর্ক আপনাকে উদ্যমী রাখে যা আপনাকে মিশ্র অনুভূতি এনে দেয় এবং এইরকম সম্পর্কই আপনি শাশুড়ির সঙ্গে বজায় রাখেন। তাঁর সঙ্গে আপনি খুব ভাল মানিয়ে চলতে পারেন বা নাও চলতে পারেন কিন্তু এ কথা আপনি অস্বীকার করতে পারবেন না যে আপনার সন্তানের জীবনে তিনি একটি গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিত্ব। আপনার বাচ্চার স্বার্থে তাদের পারস্পরিক সম্পর্ককে সম্মান করা এবং উপলব্ধি করা আপনার কাছে আবশ্যকীয়।

আপনার গর্ভধারণের সময়কালে ৬টি বিভিন্ন উপায়ে আপনার শাশুড়ি আপনাকে সাহায্য করতে পারেন।

 

১। তাঁর উপদেশের চেয়ে নিন (তাঁর কাছ থেকে জেনে নিন কি করা দরকার)

আপনার হাতের কাছে আপনার শাশুড়ি আছেন যিনি নিজেও একসময় গর্ভধারণ করেছেন। গর্ভাবস্থায় কিভাবে চলতে হয় সেই বিষয়ে তিনি আপনাকে কিছু মূল্যবান ধারণা দিতে পারেন। কিছু আচমকা ব্যথা বা সকালের অসুস্থতা সম্পর্কে এবং এগুলি উপশমে কিছু গৃহ চিকিৎসার বিষয়ে তিনি নিশ্চিতভাবে অভিজ্ঞ হবেন এবং এই সন্ধিক্ষণে তাঁর সাহায্য আপনার কাছে খুব মূল্যবান হয়ে উঠবে।

 

২। ডাক্তারের পরামর্শ নেওয়ার সময়/ডাক্তার দেখানোর সময় শাশুড়িকে সঙ্গে নিয়ে যান

যখন আপনি ডাক্তারের সঙ্গে কথা বলতে যাচ্ছেন তখন সবসময় একজন সঙ্গে থাকা স্বস্তিদায়ক। আল্ট্রাসাউন্ড থেকে সন্তানের জন্ম হওয়া পর্যন্ত গর্ভাবস্থার প্রতিটি পর্যায়ের পরিবর্তনের সঙ্গে শাশুড়িকে সংযুক্ত রাখুন। এর ফলে তাঁর সঙ্গে আপনার সম্পর্ক আরো দৃঢ়তা পাবে এবং তিনি নিজেকে সম্মানিত এবং গুরুত্বপূর্ণ ভাববেন।

 

৩। আনন্দে খাবার খান এবং তোয়াজ উপভোগ করুন

শাশুড়িরা জানেন যে গর্ভকালীন অবস্থায় খাদ্যতালিকাতে কোন কোন খাবার রাখতে হয় বা রাখতে নেই। সেইসঙ্গে তাঁরা আপনাদের উপর এইরকম অনেক খাবার চাপিয়ে দেবেন এবং সেগুলি আপনাকে মেনে চলতে বলবেন। এর সুযোগ নিন এবং আপনার জন্য তাঁর তৈরি এই সমস্ত সুস্বাদু এবং সুষম খাবার উপভোগ করুন। আপনার জীবনের এই পর্যায়ে তিনি আপনাকে একটু তোয়াজ করবেন। একটু আরাম করে বসুন এবং কৃতজ্ঞতার সঙ্গে সেই তোয়াজ উপভোগ করুন।

 

৪। শাশুড়িকে সঙ্গে নিয়ে কেনাকাটা করতে যান

যদি আপনি শাশুড়িকে সঙ্গে নিয়ে বাচ্চার দেখভালের জিনিসপত্র, খাট বিছানা বা জামাকাপড় কিনতে যান তবে আপনার সন্তানের জীবনের সঙ্গে তাঁর সংস্পর্শবোধ বেড়ে যাবে। আপনার বাচ্চার জন্য একটা শক্তপোক্ত সঙ্ঘবদ্ধ ব্যবস্থা তৈরি করা জরুরী এবং আপনার শাশুড়ি এই ব্যবস্থার একটা গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ হয়ে উঠবেন। আপনি নিশ্চয়তার সঙ্গে তাঁর মতামত গ্রহণ করতে পারেন কেননা সেগুলি অভিজ্ঞতা থেকে তিনি লাভ করেছেন।

 

৫। শাশুড়িকে আপনার সন্তানের স্নানের ব্যবস্থাপনা করতে দায়িত্ব দিন

গর্ভকালীন অবস্থার পরে সব কাজ ও আয়োজনের দেখভালের দায়িত্ব নিজের কাছে রাখা বেশ কঠিন কাজ। আপনার শাশুড়ি এবং পরিবারের অন্যান্যদের আপনার সন্তানের স্নানের ব্যবস্থাপনা করতে বা বাড়ির অন্য কোন উৎসবের আয়োজন করতে দায়িত্ব দিন। এর ফলে আপনি বিশ্রাম পাবেন এবং তিনি কাজের মধ্যে থাকবেন এবং আনন্দে থাকবেন। আসলে এটা একটা প্রত্যাশিত সমন্বয়।

 

৬। তিনি হয়ত একজন খুব ভাল শ্রোতা

গর্ভকালীন অবস্থা একটি খুব আবেগময় এবং শারীরিক কষ্টের সময়। এই সময় আপনার হর্মোনগুলি শরীরময় সক্রিয় হয়ে ওঠে, এইসময় কথা বলার জন্য সঙ্গী থাকা খুব দরকার। যদিও আপনি এবং আপনার শাশুড়ি পরস্পরের সঙ্গে এত বেশী ঘনিষ্ঠ নন যতটা স্বাভাবিক ছিল, কিন্তু যখনই গর্ভধারণ সংক্রান্ত দুশ্চিন্তার বিষয় এসে পড়বে, তখনই আপনি তার নিকটবর্তী হয়ে যাবেন। যখন সময় অনেক বেশী কষ্টকর হয়ে পড়েছে, তখন আপনি তাঁর সঙ্গে এমনভাবে কথা বলুন যেভাবে একজন নারী অন্য একজন নারীর সাথে কথা বলেন। এর ফলে হয়ত আপনারা খুব কাছাকাছি এসে যাবেন, যা দুজনের জন্যই খুব সুখকর হবে।

৫টি রকমের শাশুড়ি
আপনার রাশিচক্র আপনার শ্বশুরবাড়ির সাথে সম্পর্ক নিয়ে কি বলে?
Click here for the best in baby advice
What do you think?
0%
Wow!
0%
Like
0%
Not bad
0%
What?
scroll up icon